বাজারে দুই স্ক্রিনের স্মার্টফোন

twoscren
সমাজের কথা ডেস্ক॥
ইউরোপের ৫টি দেশের বাজারে একসঙ্গে বিক্রি শুরু হয়েছে বিশ্বের প্রথম দুই স্ক্রিনের স্মার্টফোন, ‘ইয়োটাফোন’। মডেম এবং রাউটার ইকুয়েপমেন্ট নির্মাণে পরিচিত রাশিয়ান প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইয়োটার তৈরি প্রথম স্মার্টফোন এটি।

বার্তাসংস্থা বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, ব্যাটারির চার্জ বাঁচানোর জন্য স্মার্টফোনটিতে এলসিডি ডিসপ্লের পাশাপাশি আছে ই-ইংক ডিসপ্লে। অ্যান্ডয়েড চালিত স্মার্টফোনটি ওয়েব পেইজ লিংক এবং বিভিন্ন অ্যাপ ই-ইংক স্ক্রিনে দেখাবে এবং শক্তি খরচ অসম্ভব কম বলে ই-ইংক ডিসপ্লে সবসময়ই অন থাকবে।

ই-ইংক ডিসপ্লে মূলত ই-বুক রিডারে ব্যবহার করা হয়। এ ধরনের ডিসপ্লে ব্যবহারে ব্যাটারির চার্জ কম খরচ হয়, পাশাপাশি কড়া রোদেও এলসিডি মনিটরের তুলনায় ই-ইংক ডিসপ্লে স্বাচ্ছন্দ্যে ব্যবহার করা যায়।

তবে গেইমিং বা এইচডি ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে ই-ইংক ডিসপ্লে জটিলতার সৃষ্টি করে বলে প্রচলিত স্মার্টফোনগুলো ব্যবহার নেই এটির।

বাজারে প্রচলিত স্মার্টফোনগুলো নিয়ে ব্যবহারকারীদের সবচেয়ে বড় মাথাব্যথা ডিভাইসগুলোর চার্জের স্থায়িত্ব। অনেক ব্যবহারকারীই তাদের স্মার্টফোনটি একবারের চার্জে পুরোদিন ব্যবহার করতে পারেন না।

টেক জায়ান্ট গুগলের তৈরি অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের স্মার্টফোনটিতে আছে ১.৫ গিগাহার্টজের ডুয়াল-কোর প্রসেসর এবং ১২ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরা। দাম পড়বে ৪৯৯ ডলার। আপাতত রাশিয়া, অস্ট্রিয়া, ফ্রান্স, স্পেইন এবং জার্মানির বাজারে পাওয়া যাচ্ছে এটি। ২০১৪ সালের মার্চ মাসের মধ্যে বিম্বের অন্তত ২০টি দেশের বাজারে স্মার্টফোনটি বিক্রি করার লক্ষ্য রয়েছে নির্মাতাদের।

শেয়ার