শীর্ষ ১০ দুর্নীতিবাজ রাষ্ট্রের ৫টিই আরব

Arabcountry
বাংলানিউজ ॥
বিশ্বের শীর্ষ ১০টি দুর্নীতিবাজ রাষ্ট্রের মধ্যে পাঁচটিই আরব অঞ্চলের। মঙ্গলবার বার্লিনভিত্তিক আন্তর্জাতিক ‘দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা’ সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল ‘দুর্নীতির ধারণা সূচকের চলতি বছরের তালিকা প্রকাশ করে। তালিকায় দুর্নীতিসূচকে আরব রাষ্ট্রগুলোর এই অবস্থান দেখা যায়।
ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল স্বীকার করেছে, এ অঞ্চলের অস্থিতিশীলতা সরকারের ওপর যথেষ্ট ছাপ ফেলছে, এ কারণে দুর্নীতিও বেড়েছে।
স্কোর অনুযায়ী শীর্ষ ১০টি দুর্নীতিবাজ রাষ্ট্র হলো সোমালিয়া (৮), উত্তর কোরিয়া (৮), আফগানিস্তান (৮), সুদান (১১), দক্ষিণ সুদান (১৪), লিবিয়া (১৫), ইরাক (১৬), উজবেকিস্তান (১৭), তুর্কমেনিস্তান (১৭) ও সিরিয়া (১৭)।
পাঁচটি আরব রাষ্ট্রেরই (সোমালিয়া, ইরাক, লিবিয়া, সিরিয়া ও সুদান) স্কোর ২০ এর নিচে। এসব রাষ্ট্রগুলোতে হয় গৃহযুদ্ধ চলছে অথবা বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সঙ্গে সরকারকে প্রতিনিয়িত লড়াই করতে হচ্ছে অথবা সাধারণ জনগণই দেশটির সরকারকে ব্যর্থ ও দুর্নীতিবাজ বলে আখ্যা দিচ্ছে।
আর এই দুর্নীতিগ্রস্থ দেশগুলোর মধ্যে কেবল উত্তর কোরিয়া ও দক্ষিণ সুদান ছাড়া সবগুলোই মুসলিমপ্রধান দেশ।
ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের গবেষণা বিভাগের পরিচালক ফিন হেইনরিক বলেন, দেশের মধ্যে ভাঙন (রাজনৈতিক) দুর্নীতির সঙ্গে অনেক বেশি সংশ্লিষ্ট যেটা লিবিয়া ও সিরিয়ায় দেখা যাচ্ছে। সবচেয়ে বেশি এ দু’টি দেশ ধসে গেছে।
আফগানিস্তান ও সোমালিয়ায় ন্যাটো ও মার্কিন বিশেষ বাহিনীর হস্তক্ষেপ দেশ দু’টোর দুর্নীতিতে ব্যাপক নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে বলেও মন্তব্য করেন হেইনরিক।
সবচেয়ে কম দুর্নীতিগ্রস্থ ১০টি রাষ্ট্রের মধ্যে ৬টিই ইউরোপ অঞ্চলের। বাকি চারটির দু’টি ওশেনীয় ও একটি করে উত্তর আমেরিকান ও দক্ষিণ পূর্ব এশীয়।
স্কোর অনুযায়ী সবচেয়ে ভালো রাষ্ট্র হলো ডেনমার্ক (৯১), নিউজিল্যান্ড (৯১), ফিনল্যান্ড (৮৯), সুইডেন (৮৯), নরওয়ে (৮৬), সিঙ্গাপুর (৮৬), সুইজারল্যান্ড (৮৫), নেদারল্যান্ডস (৮৩), অস্ট্রেলিয়া (৮৩) ও কানাডা (৮১)।
উল্লেখ্য, এই দুর্নীতি সূচকে বাংলাদেশের চলতি বছরের অবস্থান ১৩তম। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনালের হিসেবে মতে খানিকটা হলেও গত বছরের চেয়ে দুর্নীতি কমেছে বাংলাদেশে।

শেয়ার