প্রেসকাবের বিশেষ অতিথি সভায় সাংবাদিকদের ক্ষোভ জামায়াত বান্ধব সাতক্ষীরা পুলিশ সুপারকে প্রত্যাহার দাবি

সিরাজুল ইসলাম, সাতক্ষীরা॥ সাতক্ষীরা প্রেসকাবের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক মানবজমিন সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনের ওপর জামায়াত-শিবিরের নৃশংস হামলা চলাকালে সাতীরা পুলিশ সুপার মোল্যা জাহাঙ্গির হোসেনের সহযোগিতা চেয়ে না পাওয়া এবং সম্প্রতি হরতাল ও অবরোধকারীদের হাতে জেলায় কমপে ২০ জন সাংবাদিককে নির্যাতনের ঘটনায় পুলিশের ব্যর্থতার অভিযোগ এনে তার প্রত্যাহার চেয়েছে সাতীরায় কর্মরত সাংবাদিক সমাজ।
সোমবার দুপুরে সাতীরা প্রেসকাবের সম্মেলন কে প্রেসকাব সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এর সভাপতিত্বে¡ অনুষ্ঠিত এক বিশেষ জরুরী সাধারন সভা শেষে পুলিশ সুপার মোল্লা জাহাঙ্গির হোসেনের অবিলম্বে প্রত্যাহারের দাবি জানানো হয়। একইসাথে ইয়ারবের ওপর হামলার ঘটনায় মামলা ও হামলাকারিদের গ্রেপ্তারের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী, বিরোধী দলীয় নেত্রী, প্রধান নির্বাচন কমিশনার, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ও তথ্য মন্ত্রী বরাবর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে স্মারকলিপি দেয়ার কর্মসূচি ঘোষনা করা হয়। সাংবাদিকদের হরতাল অবরোধসহ রাজনৈতিক কর্মসূচির আওতামুক্ত রাখার ঘোষনা দিয়ে বারবার সাংবাদিকদের উপর হামলার বিষয় নিয়ে জেলা ১৮ দলীয় নেতাদের সাথে আলোচনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বক্তারা এসময় অভিযোগ করেন, জামায়াত শিবিরের সাথে যোগসাজস করে পুলিশ সুপার মোল্যা জাহাঙ্গীর হোসেন জেলাকে অচল করে রেখেছে। বিশেষ কৌশল অবলম্বন করে সরকারকে হঠাতে গোপন মিশন বাস্তবায়নে তৎপর রয়েছেন। সাংবাদিকরা আরও অভিযোগ করে বলেন, মোল্যা জাহাঙ্গীর হোসেন যোগদানের পর থেকে জেলায় জামায়াত শিবিরের অপতৎপরতা বৃদ্ধি পেয়েছে।
সভায় বক্তব্য দেন, প্রেসকাবের নব নির্বাচিত সভাপতি অধ্যাপক আবু আহমেদ, প্রথম আলোর কল্যাণ ব্যানার্জি, ইত্তেফাক ও ইটিভি’র মনিরুল ইসলাম মিনি, বাসস এর এড. অরুন ব্যনার্জী, সময় টিভি’র মমতাজ আহমেদ বাপী, দিনকালের আব্দুল বারী, এটিএন বাংলার এম কামরুজ্জামান, বিটিভি’র মোজাফ্ফর রহমান, আমাদের সময়ের মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, সময়ের খবরের রুহুল কুদ্দুস, সংবাদের আবুল কাসেম, এসএ টিভি’র ফারুক মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ প্রতিদিনের মনিরুল ইসলাম মনি প্রমূখ।
উল্লেখ্য, গত ৩০ নভেম্বর সকাল ১১ টায় পেশাগত দায়িত্ব পালনের উদ্দেশ্যে সাতীরা সদর উপজেলার উত্তর দেবনগর চারাবটতলা এলাকায় জামায়াত-শিবির সমর্থকরা সাংবাদিক ইয়ারব হোসেনকে মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে নিয়ে লোহার রড় দিয়ে পিটিয়ে মারাতœক জখম করে। বর্তমানে তিনি সাতীরা সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন।

শেয়ার