যশোরে নাবিলকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা, মনোনয়ন প্রত্যাহার দাবিতে আজ অবস্থান কর্মসূচি

Bikhob
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর-৩ সদর আসনে আওয়ামী লীগ থেকে জনবিচ্ছিন্ন ও অতিথি পাখিকে মনোনয়ন দেয়ায় ক্ষোভের বিস্ফোরণ ঘটেছে। এ আসন থেকে আওয়ামী লীগের নিবেদিত প্রাণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদারকে মনোনয়ন না দেয়ায় শহরের মানুষ সড়ক মহাসড়ক অবরোধ, ও বিক্ষোভ মিছিল করে। এছাড়া কাজী নাবিল আহম্মেদকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়। মনোনয়ন প্রত্যাহার না হলে তারা যশোরকে অচল করে দেয়ায় ঘোষণা দেন। তবে রাত ৮টার দিকে শাহীন চাকলাদারের বিশেষ অনুরোধে সড়ক অবরোধ তুলে নেয়া হয়। বিুব্ধ নেতারা জানান রাতের মধ্যে মনোনয়ন পরিবর্তন করা না হলে শনিবার সকাল থেকে অবস্থান ধর্মঘটসহ লাগাতার কর্মসূচি পালন করা হবে । এদিকে সাবেক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তফা ফারুক মোহাম্মদ, সাবেক মন্ত্রী রফিকুল ইসলাম এবং হুইপ শেখ আব্দুল ওহাব মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ায় হতাশ হয়েছেন তার কর্মী সমর্থকরা। তারা নিজ নিজ এলাকায় মিছিল সমাবেশ করেছে।
জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল জানান, যশোরের রাজনীতি ও জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন নাবিল আহম্মেদকে মনোনয়ন দেয়ায় তাকে অবাঞ্ছিত ঘোষণা করা হয়েছে। এ আসনে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সদর উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন চাকলাদারকে মনোনয়ন দেয়ার দাবিতে তার ভক্ত সমর্থকরা শহরের মণিহার চত্বর, দড়াটানা, পালবাড়ি, খাজুরা স্ট্যান্ডে অবরোধ করে। এছাড়া আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ছাত্রলীগ শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে দড়াটানায় পথসভা করে। এসময় বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম আফজাল হোসেন, সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারুল ইসলাম, জেলা যুবলীগ নেতা মাহমুদ হাসান বিপু, শফিকুল ইসলাম জুয়েলসহ নেতৃবৃন্দ। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, জেলা আওয়ামী লীগ কোনো অতিথি পাখিকে যশোরে মেনে নেবে না। তৃণমূল নেতাকর্মীরা আন্দোলন সংগ্রাম করে রাজপথে থেকে দলীয় কর্মকাণ্ড টিকিয়ে রেখেছে। এখন বাইরে থেকে একজন এসে এখানে প্রার্থী হবে, তা হতে পারে না। আর যারা অতীতে চশমা লীগ করে আওয়ামী লীগের সর্বনাশ করেছে, তারা কখনই নৌকার কাণ্ডারী হতে পারে না।’ এছাড়া যশোর-ঝিনাইদহ মহাসড়কের সাতমাইল, চুড়ামনকাটি, যশোর-খুলনা মহাসড়কের রাজারহাটে রাস্তায় টায়ার জ্বালিয়ে আগুন দেয়া হয়। আনোয়ার হোসেন বিপুল জানান সদর আসনে মনোনয়ন পরিবর্তনের দাবিতে লাগাতার কর্মসূচি পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। কর্মসূচির অংশ হিসাবে আজ সকাল ১০টা থেকে চুয়াডাঙ্গা বাস স্ট্যান্ডে অবস্থান ধর্মঘট পালন করা হবে।

শেয়ার