যশোরে অবরোধে সাড়া পায়নি ১৮ দল ॥ রাজপথ ছিল আ’লীগের দখলে

fontuvhi
নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ১৮ দলের ডাকা অবরোধে যশোরে কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে। ৪৮ ঘন্টার অবরোধে মাঠে ছিল না নেতাকর্মীরা। বিচ্ছিন্নভাবে কর্মীরা অবরোধ ও সহিংসতা সৃষ্ঠি করেছে। জামায়াত-বিএনপি ক্যাডাররা সদর উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতির হাত পায়ের রগ কেটে দিয়েছে। অবরোধের প্রতিবাদে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করেছে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ।
বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে জেলা আওয়ামী লীগের অফিসের সামনে থেকে অবরোধ বিরোধী মিছিল বের হয়। জেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক মীর জহুরুল ইসলামের নেতৃত্বে মিছিলে অংশগ্রহণ করেন যুবলীগ নেতা তৌহিদ চাকলাদার ফন্টু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এসএম মাহমুদ হাসান বিপু, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম জুয়েল, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদ, সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল প্রমুখ। মিছিলটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এসময় ১৮ দলের ডাকা অবরোধ প্রত্যাখান করে নানা শ্লোগান দেয়া হয়।
অপরদিকে বিকেলে অবরোধকারীদের ইটের আঘাতে যশোরের সিঙ্গিয়া স্টেশনে মহানন্দা ট্রেনের চালক সাইদুল আহত হয়েছেন। এ ঘটনার পর প্রায় ৪ ঘণ্টা ট্রেনটি আটকে ছিল। পরে অন্য চালক এসে ট্রেনটিকে নিয়ে চাপাইনবাবগঞ্জের উদ্দেশে যাত্রা করেছেন। যশোর রেলওয়ে জংশনের সহকারী স্টেশন মাস্টার সাইফুজ্জামান জানান, খুলনা থেকে ছেড়ে আসা চাপাইনবাবগঞ্জগামী মহানন্দা ট্রেনটি বুধবার দুপুরের দিকে সিঙ্গিয়া স্টেশনের কাছে পৌঁছালে অবরোধকারীরা ইট পাটকেল ছুঁড়ে মারে। এ সময় ইটের আঘাতে ট্রেনের চালক আহত হন। পরে তিনি স্টেশনে ট্রেনটি থামিয়ে দেন। এরপর খুলনা থেকে নতুন চালক নিয়ে এসে সন্ধ্যা ৬টার দিকে ট্রেনটি ফের যাত্রা শুরু করে।

শেয়ার