সিদ্দিক নামের নানা দিক

siddik
বাংলানিউজ ॥
বর্তমানে রাজধানীর বারিধারা এলাকার একটি ফ্ল্যাটে থাকেন অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান সিদ্দিক। দুপুর ২ টায় বাসায় ঢোকার পর তিনি বললেন, আজ সারাদিন কোনো কাজ রাখিনি। আজ আপনাদের সাথে আড্ডা দিবো। আর আপনার ভাবী তো নেই, স্পেনে গিয়েছে। আসুন বসি…

ইতিমধ্যে এই অভিনেতা দেশের সকল শ্রেণীর দর্শকের কাছে বিশেষ স্থান দখল করে নিয়েছেন তার দম ফাটানো হাস্যরস সমৃদ্ধ অভিনয়ের মাধ্যমে। এরইমধ্যে পাঠকদের একটু স্মরণ করিয়ে দিতে চাই। ২০১২ সালের ২৪ মে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত স্পেনের নাগরিক মারিয়া মীমকে বিয়ে করেন সিদ্দিক। আর এ বছরের ২৫ জুন পুত্রসন্তানের বাবা হন তিনি। নাম রেখেছেন আলিফ।

প্রথমেই জানতে চাইলাম, বিয়ে ও বাবা হবার পরের সিদ্দিক আর আগের সিদ্দিক কি এক? বললেন, ‘ফ্যামিলি লাইফ অনেক মজার। আর আমি তো সৌভাগ্যবান হঠাৎ করেই সুন্দর বউ পেয়েছি। আরো মজার ব্যাপার হলো আমার ও আমার সন্তানের জন্মদিন একই তারিখে। ২৫ জুন।’

কিন্তু এসব তো গেলো ব্যক্তিজীবনের কথা। অভিনয়ে আসার কথা শুনতে চাই। এ বিষয়ে সিদ্দিক বাংলানিউজকে বললেন, ‘১৯৯৯ সালের দিকে থিয়েটার আরামবাগের নিয়মিত কর্মী ছিলাম। ওই থিয়েটারের হয়ে বলদ, রাজার গল্প, পেজগীসহ বেশকিছু নাটকে অভিনয় করেছি। তবে আমার শোবিজে কাজের শুরুটা ছিল একটি চকলেটের বিজ্ঞাপনচিত্রের মাধ্যমে।

বিজ্ঞাপনটি নির্মাণ করেছিলেন তারিক আনাম খান। এরপর ঘটলো উল্টো ঘটনা। ক্যামেরার পেছনে তারিক আনাম খানের সহকারি পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করলাম।’

মজার ব্যাপার। ক্যামেরার সামনের মানুষটি ক্যামেরার পেছনে অনেকদিন কাজ করেছেন। তাহলে টিভি নাটকে অভিনয়ে আসলেন কিভাবে?

সিদ্দিক বললেন,‘২০০৫ সালের দিকে পরিচালক দীপংকর দীপন প্রস্তাব দিলেন `রৌদ্র ও রোদেলার কাব্য` নাটকে অভিনয় করার। এখানে আমার চরিত্রের নাম ছিল `কাউয়া সিদ্দিক`। শুরু হলো আমার ক্যামেরার সামনের জীবন।’

একই সময়ে ফাহমির পরিচালনায় ও আমার লেখা ‘কবি বলেছেন’ নাটকটিতে অভিনয় করি। নাটক দুটি দর্শক পছন্দ করেন। এরপরের জনপ্রিয়তা আসে এনটিভিতে প্রচারিত ফাহমির `হাউস ফুল` ধারাবাহিকে অভিনয় করে। এখানে তার চরিত্রের নামও থাকে সিদ্দিক। এ নাটকে অভিনয় করে তিনি পৌঁছে যান দর্শকের হৃদয়ে। এ নাটকের বিষয়ে সিদ্দিক বললেন, ‘এ নাটকের গল্পে আমার চরিত্রটি ছিল আমার নিজের কনসেপ্টের। মানে কোন পর্বে কি করবে, কিভাবে এ চরিত্রটি নাটকে এগুবে-এগুলো আমি ঠিক করি। আর আমি এখানে অভিনয়েরও পূর্ণ স্বাধীনতা পাই। যেটা আমার জন্য ছিল বাড়তি পাওয়া।’

এরপর সিদ্দিক এক এক করে দর্শককে উপহার দেন ‘গ্র্যাজুয়েট’, ‘মাইক’, ‘হাম্বা’, ‘বন্ধু এবং ভালোবাসা’, ‘সংবিধিবদ্ধ সতর্কীকরণ’, ‘ড্যান্স ডিরেক্টর’, ‘আমি নাটক বানাতে চাই’, `চৈতা পাগল`, `বরিশালের মামা ভাগ্নে`, `আমাদের সংসার`, `চন্দ্র বিন্দু’, ‘রেডিও চকলেট’সহ বেশকিছু জনপ্রিয় নাটক।

এখানেই তার প্রতিভার শেষ না। নাটকে অভিনয়ের পাশাপাশি ২৭টি নাটকের গল্পও লিখেছেন অভিনেতা সিদ্দিক। এরমধ্যে ২৩ টি নাটকের প্রচারও হয়েছে বিভিন্ন চ্যানেলে।

নাটকের পর শুরু হয় সিদ্দিকের চলচ্চিত্রে অভিনয় যাত্রা। স্যাটেলাইট চ্যানেল আরটিভির প্রযোজনায় ও সিদ্দিক অভিনীত ‘এই তো ভালোবাসা’ ছবিটি এ বছর মুক্তি পায়। ছবির কাহিনী রচনা করেছেন সিদ্দিক নিজেই। এই ছবিতে তিনি নিজ নামেই অভিনয় করছেন। তার বিপরীতে ছিলেন চিত্রনায়িকা নিপুণ।

ছবিতে অভিনয় নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি এ ছবিতে কাজ করে অনেক কিছু শিখেছি। আর দর্শকও আমাকে ভালোভাবে গ্রহণ করেছে। আমি এরইমধ্যে আমার দ্বিতীয় ছবির গল্প লিখছি। গল্পের ৮০ ভাগ লেখা শেষ করেছি। নাম রেখেছি বাংলার সিদ্দিক। এখানে আমার জীবনের ৫০ ভাগ নিজের গল্প থাকবে। গ্রাম ও শহরের গল্প থাকবে এ ছবিতে। এ ছবিটিতে আমিসহ আরো অনেকে অভিনয় করবে।’

বর্তমানে বেশকিছু নাটকের অভিনয় নিয়ে ব্যস্ত আছেন এ অভিনেতা। এরমধ্যে আব্দুল হান্নানের ‘সর্প এবং ভালোবাসা’, মোহন খানের ‘নজিরবিহীন নজর আলী’, হাসান জাহাঙ্গীরের ‘কথা কাজে মিল নেই’, রায়হান খানের বাচ্চাদের নিয়ে একটি নাম চৃড়ান্ত না হওয়া ২৬ পর্বের ধারাবাহিক নাটক।

বর্তমানে বিভিন্ন চ্যানেলে তার অভিনীত মোস্তফা কামাল রাজের ‘গেম’, আরিফ খানের ‘পেরেশান’সহ বেশকিছু নাটক প্রচার হচ্ছে।

টাঙ্গাইলের মধুপুরে জন্ম নেওয়া এ অভিনেতার আগামী পরিকল্পনা একটু ভিন্ন। নিজ এলাকায় তার পরিচিতি অভিনেতা হিসেবে নয়, নেতা হিসেবে। এ বিষয়ে তিনি বললেন, ‘আমার ইচ্ছে আছে অভিনেতা থেকে অভি নামটা বাদ দেওয়ার। মানে নেতা হবার। আর এলাকার মানুষরাও আমাকে বেশ পছন্দ করে। তাদের ইচ্ছে আমি এমপি নির্বাচন করি। আমারও তাই ইচ্ছে। দীর্ঘদিন যাবৎ এলাকার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে আমি সহযোগিতা করে আসছি। তাই আগামীবার আমি সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে চাই। জনগণের সেবা করতে চাই।’

একনামে নানা দিক সিদ্দিকের। গল্প শেষ করে বললাম-ভাবী ও বাচ্চার সাথে তো আজ দেখা হলো না। শুনে জবাব দিলেন, ও স্পেন থেকে ফিরলে জানাবো। আবারও আড্ডা হবে। সেদিন আর কোনো সাক্ষাৎকার নয়, শুধুই আড্ডা হবে।

শেয়ার