সাতক্ষীরা- খুলনা মহাসড়কের পাটকেলঘাটার ১ কিলোমিটার রাস্তা বালি ব্যবসায়ীদের দখলে

satkira
সাতক্ষীরা প্রতিনিধি॥ সাতক্ষীরা- খুলনা মহাসড়কের পাটকেলঘাটার ঝুকিপূর্ণ ১ কিলোমিটার সড়কে প্রভাবশালীরা বালু ও কাঠ রেখে কোটি টাকার ব্যবসা করলেও তাদের উচ্ছেদ করতে সাতক্ষীরা সওজ বিভাগের রয়েছে চরম উদাসীনতা। ফলে সড়কে প্রতিদিনই স্কুল কলেজ গামী ছাত্রছাত্রী, বাস, ট্রাক, ও পন্য বহনকারী বিভিন্ন যানবাহন বালু রাখা সড়ক পার হতে দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। সাতক্ষীরা পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সামনেই পাটকেলঘাটার সমবয় ট্রেডার্সের নামে একটি প্রতিষ্ঠান ঝুকিপূর্ণ বাক ব্যবহার করে দীর্ঘদিন এ বালুর ব্যবসা করছে। এর মধ্যে একটি কলেজ, দুটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও একটি ফাজেল মাদ্রাসার কয়েক হাজার ছাত্রছাত্রী নিয়মিত যাতায়াত করে থাকে।
সুত্র জানায় পাটকেলঘাটা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর এক ছাত্রী জানায় প্রাইমারির গন্ডি পেরিয়ে গত ২ বছর রোদ্র, বৃষ্টি ঝড় উপেক্ষা করে স্কুলে যাতায়াত করি। সড়কের দুই ধারে রাখা বালু কখনও বৃষ্টিতে কাপড় নষ্ট করে, কখনও যানবাহনের দুর্ঘটনার শিকার হতে হয়। আবার কখনও বাতাসে বালু উড়ে এসে সমস্ত শিক্ষা গ্রহনের পরিবেশ নষ্ট করে দেয়। এ বিষয়ে জেলা স্বেচ্ছা সেবক লীগের প্রচার সম্পাদক শেখ সাইদুজ্জামান পাইলট জনগুরুত্ব পূর্ণ সড়ক বালু ও কাঠ রাখার কারণে ঝুকিপূর্ণ হওয়ায় সাতক্ষীরা পিবিএস-এর জেনারেল ম্যানেজারের রিকমান্ড সহ লিখিত দরখাস্ত সাতক্ষীরা সড়ক ও জনপদ বিভাগের প্রধান নির্বাহী প্রকৌশলীর নিকট দাখিল করলেও আজ অবদি তার সুরাহা হয়নি বলে জানান।
এ বিষয়ে তালা উপজেলা আওয়মীলীগের সভাপতি শেখ নুরুল ইসলাম জানান, শুনেছি সড়ক জনপদ বিভাগের প্রকৌশলী এস.ও মাসুদকে মোটা অংকের টাকা মাসোয়ারা দিয়ে একটি মহাসড়ক ব্যবহার করে কোটি টাকার ব্যবসা করছে। এ বিষয়ে এস.ও মাসুদের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। সাতক্ষীরা সড়ক জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী জানান, সরেজমিন অনুসন্ধান শেষে ঘটনার সাথে যারাই জড়িত থাকুক না কেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা সহ ঐ অবৈধ দখলদারদের অচিরেই উৎখাত করা হবে।

শেয়ার