থানায় অভিযোগ দেয়ার পরও নিষ্ক্রিয় পুলিশ জমি জবর দখলের পর এবার মালিককে হত্যার চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুরে এক নিরীহ জমি মালিককে উৎখাতের চেষ্টায় মরিয়া হয়ে উঠেছে স্থানীয় ভূমিদস্যুরা । থানা পুলিশের দারস্থ হয়েও তিনি ভূমিদস্যুদের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছেন না । জমি জবর দখলে বাধা দেয়ায় ভূমিদস্যুরা তাকে কয়েকদফা মারপিট এবং অব্যাহত ভাবে হুমকি দিয়ে চলেছে । নিরাপত্তাহীনতায় তিনি বাড়ি ফিরতে পারছেন না।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় ,যশোর সদর উপজেলার নরেন্দ্রপুরের আব্দুল মান্নান মোড়লের ছেলে মনির হোসেনের ২৯ শতক জমি রয়েছে । ২৩৮ নরেন্দ্রপুর মৌজায় ওই জমির অবস্থান । সম্প্রতি আন্দুলিয়া এলাকার চিহ্নিত ভূমিদস্যু আবুল খাঁয়ের মোল্যা , বাবু , মহিউদ্দীন ও সরোয়ারের ওই জমির উপর লোলুপ দৃষ্টি পড়ে । তারা জমিটি জবর দখলের চেষ্টা চালায় । ১৮ নভেম্বর তারা ওই জমি থেকে তার সাইন বোর্ড সরিয়ে ঘর তোলে । খবর পেয়ে বাধা দিতে গেলে তারা মনির হোসেনকে মারপিট করে । এব্যাপারে তিনি প্রথমে স্থানীয় ফাঁড়িতে এবং পরে থানায় অভিযোগ করেন । এতে আরও ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে ভূমিদস্যুরা । বুধবার তারা মনির হোসেনকে দ্বিতীয় দফায় মারপিঠ করেছে । এর পর এ নিয়ে পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশিত হলে ভূমিদস্যুরা প্রকাশ্যে অস্ত্র নিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা চালায়। ২০ নভেম্বর ভূমিদস্যু শিহাব ও কবির এলাকার ইকরামুলের দোকানের সামনে মনির হোসেনের উপর ফের চড়াও হয়। এ সময় তারা অস্ত্র উচিয়ে মনির হোসেনকে গুলি করতে যায় । মনির হোসেন দৌড়ে পালিয়ে গিয়ে প্রাণে বেঁচে যান। বর্তমানে তিনি এবং তার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছেন ।মনির হোসেন জানান জমি জবর দখলকারীরা জামায়াতের চিহ্নিত ক্যাডারদের ছত্রছায়ায় থাকে। তাদের কাছে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র। তারা এলাকায় নানা ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত। এসব অপরাধীদের দমনে স্থানীয় ফাঁড়ি পুলিশের কোন পদক্ষেপ নেই। তিনি বলেন তার জমি দখল এবং মারপিটেরও স্থানীয় ফাঁড়ির দারোগাকে জানিয়ে ঘটনা কোন প্রতিকার পাওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে আশু ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য তিনি পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ।

শেয়ার