সহিংসতাকারীদের আইনের আওতায় আনার নির্দেশ

sohingsota
সমাজের কথা ডেস্ক॥ সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি অস্থিতিশীল, সরকারি সম্পদ ও জনসাধারণের জানমালের ক্ষতি, অর্থনীতি ধ্বংস ও দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড বাধাগ্রস্ত করতে যারা বিক্ষিপ্তভাবে সহিংস ও ধ্বংসাত্মক ঘটনা ঘটানোর চেষ্টা করছে তদন্ত পূর্বক দ্রুত সেসব দুষ্কৃতিকারীদেরকে আইনের আওতায় আনার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।
রোববার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. মাহফুজুল হক স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।
স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর দুজন নেতা হত্যার প্রতিবাদে বৃহত্তর চট্টগ্রামে রোববারে সকাল-সন্ধ্যা হরতালে জামায়াত ও শিবিরকর্মীরা জনসাধারণের মধ্যে ভীতি, আতঙ্ক ও ত্রাস সৃষ্টির লক্ষ্যে চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানে মিছিল, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও নৈরাজ্য সৃষ্টির চেষ্টা করে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সতর্কতা ও তাৎক্ষণিক তৎপরতায় তাদের সে অপচেষ্টা ব্যর্থ হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, চট্টগ্রামে হরতাল চলাকালে কয়েকটি স্থানে জামায়াত-শিবিরকর্মীরা বিচ্ছিন্ন ঘটনায় দুটি গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগ করে এবং ১০টি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। কয়েকটি বিছিন্ন ঘটনা ছাড়া আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সতর্ক ও তৎপর থাকায় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি এবং পরিস্থিতি সাধারণভাবে স্বাভাবিক ও শান্ত ছিল। হরতালের নামে নৈরাজ্য ও নাশকতার হাত থেকে সরকারি সম্পদ ও জনসাধারণের জানমাল রক্ষার্থে সরকার গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

শেয়ার