খুলনায় জাতীয় স্যানিটেশন মাস উপলক্ষে বিভাগীয় কর্মশালা

khulna
গতকাল শনিবার জাতীয় স্যানিটেশন মাস অক্টোবর-২০১৩ উপলক্ষে দিনব্যাপী খুলনা বিভাগীয় কর্মশালা খুলনা জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কে অনষ্ঠিত হয়েছে। খুলনা বিভাগীয় প্রশাসন ও জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের উদ্যোগে এবং ইউনিসেফ’র সহযোগিতায় অনুষ্ঠিত এই কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল জলিল।
কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বিভাগীয় কমিশনার বলেন, আমাদের গড় আয়ূ বৃদ্ধি পেয়েছে, সহস্রাব্দ উন্নয়ন ল্যমাত্রার বিভিন্ন েেত্র সফলতা লাভ করে জাতিসংঘ পদক পেয়েছি। এেেত্র নিরাপদ পানি, স্বাস্থ্যসম্মত পায়খানা ব্যবহার ও পুষ্টিকর খাবার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। তিনি আরও বলেন, সম্পদের সুষম বন্টন নিশ্চিত করা গেলে আমরাও স্বাবলম্বী জাতি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করতে পারবো। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের খুলনা সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মনোয়ার আলী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) গাউস, খুলনা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আব্দুলাহ এবং ইউনিসেফের আঞ্চলিক প্রধান বদরুল হাসান। কর্মশালায় বলা হয়, খুলনা বিভাগের ১০টি জেলার মধ্যে সর্বোচ্চ স্যানিটারি ল্যাট্রিন ব্যবহারকারী জেলা হচ্ছে মাগুরা। এ জেলায় শতকরা ৯৭ ভাগ পরিবার স্যানিটারি ল্যাট্রিন ব্যবহার করে থাকে। সর্বনিম্ন ল্যাট্রিন ব্যবহারকারী জেলা হলো ঝিনাইদহ। এ জেলাতে শতকরা ৫৮ দশমিক ৬ ভাগ পরিবার স্যানিটারি ল্যাট্রিন ব্যবহার করে থাকে। খুলনা বিভাগের ৩৬টি পৌরসভার মধ্যে সর্বোচ্চ স্যানিটারি ল্যাট্রিন ব্যাবহারকারী ঝিনাইদহের শৈলকুপা ও চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা পৌরসভা। এ দু’টি পৌরসভায় শতভাগ পরিবার স্যানিটারী ল্যাট্রিন ব্যবহার করে থাকে। সর্বনিম্ন ল্যাট্রিন ব্যবহারকারী পৌরসভা হচ্ছে চুয়াডাঙ্গার জীবননগর। এখানে শতকরা ৩৩ দশমিক চার ভাগ পরিবার স্যানিটারি ল্যাট্রিন ব্যবহার করে। কর্মশালায় খুলনা বিভাগের বিভিন্ন জেলার জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী, শিা, তথ্য, স্যানিটেশন নিয়ে কাজ করে এমন বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা এবং গণমাধ্যম প্রতিনিধিরা অংশ নেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

শেয়ার