শুনানির প্রথম দিন থাকছেন না আশরাফুল

asraful
বাংলানিউজ॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ম্যাচ ও স্পট ফিক্সিংয়ে অভিযুক্ত নয়জনের বিরুদ্ধে শুনানি শুরু হচ্ছে রোববার। প্রাথমিক শুনানি বলে প্রথমদিন হাজির থাকছেন না আইসিসির কাছে শুরুতেই দোষ স্বীকার করা মোহাম্মদ আশরাফুল।
শুনানির আগের দিন শনিবার মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে হঠাৎ করে উপস্থিত হন আশরাফুল। বোর্ড কর্মকর্তাদের সঙ্গে শুনানির বিষয়ে আলোচনা করতে এসেছিলেন তিনি। প্রথম দিন হাজির থাকছেন কি না এমন প্রশ্নে বাংলানিউজ’কে বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক বললেন,‘এই বিষয়টা নিয়ে এখনো ভাবিনি। আমার সেখানে হাজির হওয়ারও কিছু নেই। আমার আইনজীবীর পক্ষ থেকে ই-মেইল পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন তো প্রাথমিক শুনানি, এখন উপস্থিত না হলেও চলবে।’
আশরাফুলের পক্ষে ওকালতি করছেন দুজন আইনজীবী। ইংল্যান্ডের ইয়াসিন প্যাটেল ও বাংলাদেশের খালেক চৌধুরী। আদালতের নির্দেশ পেলে তবেই ট্রাইব্যুনালের সামনে আসবেন আশরাফুল, ‘আদালত যেদিন চাইবে আমি ও আমার আইনজীবীরা সেদিনই উপস্থিত হব।’
শনিবার গুলশানের নাভানা টাওয়ারে বিসিবি’র শৃঙ্খলা কমিটির নির্বাচিত দুর্নীতি বিরোধী ট্রাইব্যুনালের আহ্বায়ক সাবেক বিচারপতি খাদেমুল ইসলাম চৌধুরী শুনানির ব্যাপারে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন।
সেখানে খাদেমুল জানালেন, ‘কাল (রোববার) থেকে অভিযুক্ত নয়জনের প্রাথমিক শুনানি শুরু হবে। পরে চূড়ান্ত শুনানির তারিখ জানিয়ে দেওয়া হবে। ইতোমধ্যে আমরা অভিযুক্ত প্রত্যেকের কাছেই নোটিশ পাঠিয়েছি। তবে এই শুনানির কার্যক্রম কবে নাগাদ শেষ হবে তা এখনই বলা যাচ্ছে না। যত দ্রুত সম্ভব আমরা এটা শেষ করার চেষ্টা করব।’
বোর্ডের দুর্নীতি বিরোধী আইন অনুযায়ী শুনানি চলবে জানালেন সাবেক এই বিচারপতি, ‘দেশের প্রচলিত আইন নয়, বিসিবির দুর্নীতি বিরোধী বিধি অনুযায়ী শুনানি চলবে। শুনানি শেষে প্যানেল প্রধানের কাছেই আপিল করা যাবে। দেশের কোনও আদালতে আপিলের সুযোগ নেই। তবে চাইলে আন্তর্জাতিক আদালতে যাওয়ার সুযোগ আছে।’
এছাড়া বিদেশি অভিযুক্তরা তাদের আইনজীবীর মাধ্যমে শুনানিতে অংশ নিতে পারবেন বলে জানান তিনি।
এদিকে কিছুদিন আগে ঢাকা গ¬্যাডিয়েটরসের অভিযুক্ত শীর্ষ ব্যক্তিরা জানিয়েছিলেন, তারা ট্রাইব্যুনালে আসবেন না। এ ব্যাপারে খাদেমুল বলেন, ‘তাদের এখানে আসতেই হবে। এর বেশি কিছু আমরা এই মুহূর্তে বলতে চাই না। তারা না এলে আইনে যা আছে তাই হবে।’
গত ১৪ অক্টোবর বিসিবি আইন কমিশনের সাবেক চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্টের সাবেক বিচারপতি আবদুর রশিদকে ডিসিপ্লিনারি প্যানেলের চেয়ারম্যান নিয়োগ করে বিসিবি। বিধি অনুযায়ী তিনি ডিসিপ্লিনারি প্যানেলের ১০ সদস্য নিয়োগ করেন। ১০ নভেম্বর প্যানেলের চেয়ারম্যান সাবেক বিচারপতি খাদেমুল ইসলাম চৌধুরীকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের দুর্নীতি বিরোধী ট্রাইব্যুনাল গঠন করেন। অপর দুই সদস্য হলেন আজমামুল হোসেন কিউসি ও সাবেক ক্রিকেটার শাকিল কাসেম।
নয়জন অভিযুক্তরা হলেন- বাংলাদেশের ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুল, মাহবুবুল আলম ও মোশাররফ হোসেন, সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ রফিক ও ঢাকা গ¬্যাডিয়েটরসের মালিক সেলিম চৌধুরী ও শিহাব চৌধুরী। বিদেশিদের মধ্যে আছেন এই ফ্র্যাঞ্চাইজির প্রধান নির্বাহী গৌতম রাওয়াত, শ্রীলঙ্কার ক্রিকেটার কৌশল লুকারচ্চি ও ইংল্যান্ডের ড্যারেন স্টিভেন্স।

শেয়ার