লাটভিয়ায় বিপণিকেন্দ্রের ছাদ ধসে নিহত ৩৩

latvia
বাংলানিউজ॥
লাটভিয়ার রাজধানী রিগায় একটি বিপণিকেন্দ্রের ছাদ ধসে অন্তত ৩৩ জন নিহত ও ৩৫ জন আহত হয়েছেন। ধ্বংসস্তূপের নিচে এখনও অনেকে আটকা পড়ে আছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।
স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ছয়টার একটু আগে ম্যাক্সিমা চেইন পরিচালনাধীন ৫ হাজার বর্গফুটের বিপণিকেন্দ্রটিতে এ দুর্ঘটনা ঘটে। রাত ভর উদ্ধার অভিযান চালানো হয়।
এরইমধ্যে দুর্ঘটনার কারণ খুঁজতে তদন্ত শুরু হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।
নিহতদের মধ্যে তিনজন উদ্ধারকর্মী রয়েছেন বলে বিবিসি অনলাইনের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। বিপণিবিতাদের ছাদ ধসকে সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে ১৯৯১ সালে স্বাধীনতা পাওয়ার পর থেকে সবচেয়ে ভয়াবহ দুর্ঘটনা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।
ছাদ ধসের প্রকৃত কারণ এখনও জানা যায়নি। তবে ওই সময় বিপণিকেন্দ্রটির ছাদে একটি বাগান নির্মাণের কাজ চলছিল বলে জানা গেছে।
২০১১ সালে চালু হওয়া বিপণিকেন্দ্রটির ছাদের একটি অংশ প্রথমে ধসে পড়ে। এর প্রায় ২০ মিনিট পর অপর অংশটি ধসে পড়ে। এর ফলেই উদ্ধারকর্মীরা আহত হন।
প্রত্যক্ষদর্শী আনিতা দকস্তে বলেন, এটা ধ্বংস হয়ে যাচ্ছিল। বেশিরভাগ মানুষ কাঁদতে ও চিৎকার করতে শুরু করল। এটা নিশ্চিত প্রথমবার ধসের পর যারা ভেতরে ছিলেন, দ্বিতীয়বার ধসের পর তারা আর বেঁচে নেই।
উদ্ধারকর্মীদের কয়েকটি দল উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে, ধ্বংসস্তূপের নীচে ৫০ জনের মতো আটকা পড়ে আছেন।
এ ঘটনায় রিগার মেয়র শুক্রবার পৌর কর্মকর্তা ও উদ্ধার সেবাকেন্দ্রের জরুরি বৈঠক ডেকেছেন।

শেয়ার