সাড়ে ৫ লাখ স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স দিয়েছে সরকার

brta
বাংলানিউজ ॥
বর্তমান সরকারের পাঁচবছর মেয়াদে প্রায় সাড়ে পাঁচ লাখ ইলেকট্রনিক চিপযুক্ত ডিজিটাল স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে।
এ লাইন্সেস ১০ বছর মেয়াদী। এর আগে এনালগ ড্রাইভিং লাইন্সেস জালিয়াতির সুযোগ থাকলেও স্মার্ট কার্ডে জালিয়াতির সুযোগ নেই।
সম্পূর্ণ কম্পিউটারাইজড পদ্ধতিতে চালকের সব তথ্য এতে সংরক্ষিত থাকে। বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটি (বিআরটিএ) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
জানা গেছে, স্মার্ট কার্ড ড্রাইভিং লাইসেন্সে চার আঙুলের ছাপ, ডিজিটাল ছবি ও স্বাক্ষর থাকায় নকল করা যায় না। সহজে ও দ্রুত সব তথ্য যাচাই করা যায়। বর্তমান সরকারের মেয়াদে ৫ লাখ ৩৭ হাজার ১০২টি লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে।
আরও জানা গেছে, এনালগ নাম্বার প্লেটের মাধ্যমে গাড়ি চুরি, একাধিক নাম্বার প্লেট জালিয়াতি করা যেত। রেট্রো-রিফ্লেক্টিভ নাম্বারপ্লেট, রেডিও ফ্রিক্যুয়েন্সি আইডেনটিফিকেশন (আরএফআইডি) ট্যাগ ও ডিজিটাল রেজিস্ট্রেশন সার্টিফিকেট প্রবর্তন করার ফলে জালিয়াতি বন্ধ হয়েছে।
রেট্রো রিফ্লেক্টিভ নাম্বারপ্লেট দিনে ও রাতে সমান দৃশ্যমান থাকে। সব গাড়িতে একই মানের নাম্বার প্লেট থাকায় সহজে গাড়ির অবস্থান শনাক্ত করা যায়। ডিজিটাল সার্টিফিকেট হওয়ায় তা সহজে বহন ও মেশিনে সহজে সব তথ্য যাচাই করা যায়।
জানা গেছে, বর্তমান সরকারের মেয়াদে বিআরটিএ মোটরযান কর, ফি অনলাইনে জমা দেওয়ার ফলে কর ফাঁকি ও জমা সহজ হয়েছে।
ট্যাক্সিক্যাব সার্ভিসের দৈন্যদশা ও পরিবেশবান্ধব ট্যাক্সিক্যাব সার্ভিস প্রবর্তনের জন্য ঢাকা মহানগরীতে একটি প্রাইভেট কোম্পানিকে ২৫০টি, আর্মি ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টকে ঢাকা মহানগরীতে ২৫০টি ও চট্টগ্রাম মহানগরীতে ১৫০টি ট্যাক্সিক্যাব নামানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার