বছর শেষ হওয়ার আগেই চলে এসেছে নতুন বই॥রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যেও দুশ্চিন্তামুক্ত অভিভাবকরা

book
তবিবর রহমান ॥
রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে যশোরে এবার আগে ভাগে নতুন বই পৌঁছাতে শুরু করেছে। ইতোমধ্যে জেলায় প্রাথমিকের ৭৫ ভাগ এবং মাধ্যমিকে ৩৯ ভাগ বই এসে পৌঁছেছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে চলে আসবে অবশিষ্ট বই।
জেলা শিক্ষা অফিসের বিদ্যালয় সহকারী পরিদর্শক মোহাম্মদ নুরুজ্জামান জানান, আগামী শিক্ষা বর্ষে ছাত্রছাত্রীদের হাতে বই তুলে দিতে নতুন বই আসতে শুরু করেছে। নভেম্বরের মধ্যেই সব নতুন বই উপজেলায় পৌঁছে যাবে বলে আশা করা হচ্ছে। এতে রাজনৈতিক অস্থিরতার মধ্যেও দুশ্চিন্তামুক্ত হলেন অভিভাবকরা। তিনি আরও জানান, জেলায় মাধ্যমিকে এবার বইয়ের চাহিদা ৪১ লাখ ৯১ হাজার ৪৭৭টি। বই এসেছে ১৬ লাখ ৩৬ হাজার ৫৮০টি। এসএসসি ভোকেশনালে বইয়ের চাহিদা ৬৫ লাখ ৯৩০টি। পৌঁছেছে ১৫ হাজার ৯৬০টি। তবে মাদ্রাসায় দাখিল পর্যায়ে ৭ লাখ ৮২ হাজার ১৮৬ এবং এবতেদায়িতে ৫ লাখ ১২ হাজার ৮৯৮টি বই চাহিদা থাকলেও এখনও এসে পৌঁছায়নি। তবে নভেম্বরের মধ্যেই এসব বই চলে আসবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিস সূত্র মতে, জেলায় চাহিদার ৭৫ ভাগ বই এসে পৌঁছেছে। জেলার ৮ উপজেলায় প্রাথমিকে বইয়ের চাহিদা ১৭ লাখ ২৩ হাজার ৭৫২। বই পাওয়া গেছে ১৪ লাখ ৮২ লাখ ৩৯০টি। এছাড়া মণিরামপুর উপজেলায় ২লাখ ৫৫ হাজার ২৪টি বইয়ের চাহিদার পুরোটাই এবং কেশবপুরে ১ লাখ ৪৭ হাজার ৯৫৪টি বইয়ের ৪৪৩টি ছাড়া সবগুলোই চলে এসেছে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে জেলার সব উপজেলায় পুরো বই এসে যাবে।
জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের স্টোর কিপার শফিউল ইসলাম জানান, দেশের বর্তমান রাজনৈতিক সংকটের কথা বিবেচনা করে এবার আগেভাগেই সরকার বই পাঠাচ্ছে। এক সপ্তাহের মধ্যে পুরো বই এসে পৌঁছাবে বলে তিনি জানিয়েছেন। তবে সরকারের নির্দেশ অনুযায়ী ১ জানুয়ারি বা নির্দিষ্ট দিনে বই বিতরণ করা হবে।

শেয়ার