টি-২০ বিশ্বকাপ যশোরে মিলছে না গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচের টিকিট

ক্রীড়া প্রতিবেদক॥ বাংলাদেশে অনুষ্টিতব্য আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপের টিকিট বিক্রির তৃতীয় দিনেই প্রত্যাশা মতো টিকিট পায়নি যশোরের ক্রিকেটপ্রেমীরা। মঙ্গলবার সকাল থেকে টিকিটের জন্য শহরের শহীদ সড়কের অগ্রণী ব্যাংকের শাখায় ক্রিকেট ভক্তদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। তবে তাদের মধ্যে প্রত্যাশিত টিকিট না পেয়ে অনেকে ফিরে গেছেন। আবার অনেকে দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানোর মতো কিনেছেন অন্য ম্যাচের টিকিট। এই প্রত্যাশিত টিকিট না পাওয়ার বিষয়ে ক্রিকেট ভক্তরা ব্যাংক কর্মকর্তাদের দায়ী করেছেন।
বকচর এলাকা থেকে টিকিট কিনতে আসা তৌহিদুল ইসলাম স্বপন বলেন, তিনি বাছাইপর্বের বাংলাদেশের একটি ম্যাচের ৪টি টিকিট কিনতে এসেছেন। কিন্তু পেয়েছেন ২টি টিকিট। অন্য ২টি ২৩ মার্চ মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিতব্য ওয়েস্ট ইন্ডিস ও ভারতের মধ্যকার অনুষ্ঠিত ম্যাচের টিকিট পেয়েছেন।
আরবপুরের সুমন হোসেন বলেন, তিনি সেমিফাইনালের একটি ম্যাচের টিকিটের আশায় এসেছিলেন। কিন্তু পেয়েছেন গ্রুপ পর্বের নিউজিল্যান্ডের ম্যাচের টিকিট। এম এম কলেজের আরমান ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিট না পেয়ে ফিরে গেছেন। আর এই টিকিট না পাওয়ার বিষয়ে কয়েকজন ব্যাংক কর্মকর্তাদের দায়ী করলেন। তবে এই বিষয়ে সহকারী ব্যবস্থাপক (এজিএম) মৃণাল কান্তি বকসী জানান, টিকিট বিক্রিতে আমাদের কোন হাত নেই। ভারতীয় একটি কোম্পানি এই টিকিট বিক্রি করছে। তবে বিশ্বকাপের গুরুত্বপূর্ন ম্যাচের টিকিট গুলো ওয়েবসাইটে বিক্রি হচ্ছে। এই কারনে তারা দর্শকদের প্রত্যাশা মতো টিকিট সরবরাহ করতে পারছেননা।
সাধারণ দর্শকের কথা ভেবে টিকিটের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে সর্বনি¤œ ৫০ টাকা থেকে সর্বোচ্চ ৩ হাজার টাকা পর্যন্ত। লাইনে দাঁড়িয়ে টোকেন সংগ্রহ করে একজন সর্বাধিক ৪টি টিকিট সংগ্রহের সুযোগ পাচ্ছেন। প্রত্যেক শাখায় প্রতিদিন ৭০ টি করে টোকেন দেয়ার অনুমতি দেয়া হয়েছে। টিকিট বিক্রি চলবে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

শেয়ার