রাষ্ট্রপতিকে সংলাপের উদ্যোগ নেওয়ার অনুরোধ খালেদার

kaleda
বাংলানিউজ ॥ দেশের চলমান রাজনৈতিক সঙ্কট নিরসনে সংলাপের উদ্যোগ নেওয়ার জন্য রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এর কাছে অনুরোধ জানিয়েছে ১৮ দলীয় জোট। বিরোধী দলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাত করে তারা এ অনুরোধ জানায়।
এ সময় ১৮ দলীয় জোটের পক্ষে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল সাক্ষরিত লিখিত প্রস্তাব রাষ্ট্রপতির হাতে তুলে দেওয়া হয়।
ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক শেষে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বৈঠকের বিষয় সাংবাদিকদের অবহিত করেন।
তিনি জানান, বিরোধী দলের অনুরোধের প্রেক্ষিতে রাষ্ট্রপতি জানিয়েছেন, সাংবিধানিক ক্ষমতার মধ্য থেকে তিনি চেষ্টা করবেন। বিরোধী দলের আহবান সরকারের কাছে পৌছে দেবেন।
এর আগে নির্দলীয় ও নিরপেক্ষ কোন ব্যক্তিকে প্রধান করে নির্বাচনকালীন সরকার গঠনের প্রস্তাব সামনে রেখে রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ এর কাছে ৮ দফা প্রস্তাব পেশ করা হয়েছে বলে জানায় দলীয় সূত্র।
সোমবার বিকেলে সর্বদলীয় মন্ত্রিসভার নতুন আট সদস্য শপথ গ্রহণের পর খালেদা জিয়া সন্ধ্যায় রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সাক্ষাতের সময় চেয়ে আবেদন করেন। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার সন্ধ্যা সাড়ে ছ’টায় বিরোধী দলীয় নেতাকে সাক্ষাতের সময় দেন রাষ্ট্রপতি।
কিন্তু নির্ধারিত সময়ের আগে চলে আসায় তাকে অপেক্ষা করতে হয় বঙ্গভবনের বহিরাংশের চত্বরে। বঙ্গভবনে তার সঙ্গী হয় ২০ সদস্যের প্রতিনিধি দল।
এদের মধ্যে ছিলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আরএ গণি, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, ব্রিগেডিয়ার (অব.) আ স ম হান্নান শাহ, নজরুল ইসলাম খান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।
কল্যাণ পার্টি চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মো. ইব্রাহিম বীরপ্রতীক, জামায়াতের সিনিয়র নায়েবে আমির নাজির আহমেদ, লেবার পার্টি চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, বাংলাদেশ ন্যাপের জেবেল রহমান গানি, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান আবদুল লতিফ নেজামী, এনডিপির গোলাম মোর্তজা, এনপিপির শেখ শওকত হোসেন নীলু, জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান, খেলাফত মজলিসের আমির মওলানা মুহাম্মদ ইসাহাক, বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির ( বিজেপি) চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার আন্দালিব রহমান পার্থ প্রমুখ।
বঙ্গভবনে ঢোকার মুখে সাংবাদিকরা মুখোমুখি হলে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ও জাগপা সভাপতি শফিউল আলম প্রধান বলেন, আমাদের দাবি একটাই, নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়কের অধীনেই নির্বাচন হবে।
এলডিপি চেয়ারম্যান কর্নেল (অব.) অলি আহমদ বলেন, প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ করতে হবে।

শেয়ার