হেফাজত নেতা আহম্মেদ হাসানের আদালতে স্বীকারোক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে বলাৎকারের ঘটনায় আটক হেফাজতে ইসলামের নেতা আহম্মেদ হাসান আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। রোববার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মারুফ আহমেদের আদালতে তিনি তার অপকর্মের কথা স্বীকার করেন।
স্বীকারোক্তিতে তিনি বলেছেন, বিভিন্ন সময়ে ওই ছাত্রকে তার ব্যবহৃত ল্যাপটপে অশ্লীল ভিডিও চিত্র দেখানো ও তাকে মারপিটসহ বিভিন্ন ধরনের ভয়ভীতি দেখিয়ে তাকে এ কর্মে বাধ্য করা হত। এক পর্যায়ে ১০ অক্টোবর ভোরে মাদ্রাসা থেকে ছাত্রটি পালিয়ে যায়। এর পর তার অভিভাবকরা অপকর্মের কথা জানতে পেরে থানা পুলিশের মাধ্যমে অধ্যক্ষ আহম্মেদ হাসানকে পুলিশ আটক করে। আর ওই ছাত্রের মা মামলা করেন। রোববার তাকে আদালতে প্রেরণ করে পুলিশ। আদালতে নিজের অপকর্মের কথা স্বীকার করেন তিনি।

শেয়ার