চোরাই ল্যাপটপ ও ছিনতাইয়ের টাকা উদ্ধার ॥ আটক ৪

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে পৃথক অভিযান চালিয়ে পুলিশ ৪ দুর্বৃত্তকে আটক করেছে। এ সময় তাদের কাছ থেকে একটি চোরাই ল্যাপটপ ও ছিনতাই হওয়া নগদ এক হাজার টাকা উদ্ধার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে পৃথক দু’টি মামলা হয়েছে। তারা হলো, রায়পাড়া এলাকার খলিলুর রহমানের ছেলে মেহেদী হাসান সবুজ, জামান শেখের ছেলে রবিউল ইসলাম সাগর, ষষ্ঠীতলার নুরুজ্জামানের ছেলে কামরুজ্জামান বাপ্পী ও মুন্না খানের ছেলে নাইম খান।
পুলিশ জানিয়েছে, এদিন সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে জেলা স্কুলের সামনে থেকে লক্ষন কুমার নামে এক যুবকের এক হাজার টাকা ছিনতাই করে দুর্বৃত্তরা। লক্ষণ কুমার শহরের বেজপাড়ার কৃষ্ণপদ বিশ্বাসের ছেলে। পরে লক্ষণ বিষয়টি থানা পুলিশকে জানালে কামরুজ্জামান বাপ্পি ও নাইম খানকে আটক করে। এ সময় ছিনতাই হওয়া টাকা পুলিশ তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় লক্ষণ বাদী হয়ে কোতোয়ালি থানায় দ্রুত বিচার আইনে মামলা করেছেন।
অপর দিকে শহরের ষষ্ঠীতলা থেকে একটি চোরাই ল্যাপটপসহ মেহেদী হাসান সবুজ ও রবিউল ইসলাম সাগরকে আটক করে। পুলিশ ল্যাপটপের মালিককে সনাক্ত করতে না পারলেও আটক দু’জন বলেছে ওই এলাকার হাফিজুর রহমান মরার কাছ থেকে তারা কিনেছে। মরা একজন চিহ্নিত খুনি, মাদক ও চোরাচালান ব্যবসায়ী। দীর্ঘ দিন সে একটি হত্যা মামলায় হাজত বাসের পরে আবারো ওই ধরনের অপকর্ম শুরু করেছে বলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানাগেছে। ল্যাপটপসহ তাদের আটকের ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে। মরাকে আটক করলে ল্যাপটপের প্রকৃত মালিক খুঁজে পাওয়া যাবে।

শেয়ার