এক সন্তান নীতি শিথিল

china
সমাজের কথা ডেস্ক॥ চীন সরকার এক সন্তান নীতি শিথিল করছে বলে জানিয়েছে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম।
দেশের অর্থনৈতিক এবং সামাজিক খাতে আমূল পরিবর্তনের বিস্তারিত সংস্কার পরিকল্পনা শুক্রবার প্রকাশ করেছে চীন। এর আওতায়ই ওই পদক্ষেপ নিচ্ছে সরকার।
সিনহুয়া বার্তা সংস্থা জানায়, নতুন নীতি অনুযায়ী চীনা দম্পতিরা ভবিষ্যতে দুই সন্তান নিতে পারবে, যদি বাবা-মায়েদের কোনো একজন একমাত্র সন্তান হয়ে থাকেন।
এ সপ্তাহে চীনের ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির সিদ্ধান্ত গ্রহণকারী সদস্যদের একটি বৈঠকের পর সরকার এ পদক্ষেপ নিল।
কমিউনিস্ট পার্টির এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “দীর্ঘমেয়াদে চীনে জনসংখ্যাবৃদ্ধির ভারসাম্য বজায় রাখতে ধাপে ধাপে এক সন্তান নীতি মানিয়ে নেয়া এবং অদল বদল করা হবে।
চীনে দ্রুত জনসংখ্যা বৃদ্ধির রাশ টেনে ধরতে ১৯৭০ এর দশকের শেষদিকে এক সন্তান নীতি চালু করে দেশটির সরকার।
চীনা নেতারা অবশ্য আগেও এক সন্তান নীতি বদলানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। এবার দেশের মানবাধিকার এবং আইনি ব্যবস্থা উন্নয়নের প্রচেষ্টায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হল।
সামাজিক এ সংস্কারের পাশাপাশি অর্থনৈতিক সংস্কার পরিকল্পনারও বিশদ বিবরণ দিয়েছে চীন। এর আওতায় চীনে মুক্তবাজারের ভূমিকা হবে বেশি। আর কৃষকদের সম্পত্তির অধিকার বাড়বে তাদের জমির ওপর।
শুক্রবার ঘোষিত অন্যান্য সংস্কার পরিকল্পনার মধ্যে রয়েছে মৃত্যুদণ্ডযোগ্য অপরাধের সংখ্যা কমানো।

শেয়ার