সরকার ক্ষমতায় এসে মংলা বন্দরের অভাবনীয় উন্নয়ন করেছে – নৌ-পরিবহণ মন্ত্রী

খুলনা ব্যুরো॥ নৌ-পরিবহণ মন্ত্রী শাজাহান খান বলেন, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে মংলা বন্দরের অভাবনীয় উন্নয়ন সাধন করেছে। পশুর চ্যানেলে ড্রেজিং, যন্ত্রপাতি সংগ্রহ, নেভিগেশনাল সুবিধাবৃদ্ধি ও ভৌত অবকাঠামো নির্মাণে কাজ করে যাচ্ছে।
শনিবার দুপুরে মংলা বন্দরে “মংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের হারবার এলাকায় ড্রেজিং প্রকল্প” উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় নৌ-পরিবহণ মন্ত্রী সুধী সমাবেশে এ কথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, পশুর চ্যানেলের নাব্যতা রক্ষার জন্য ১৩২ কোটি টাকা ব্যয়ে এ ড্রেজিং প্রকল্পের অধীনে ১৩কিলোমিটার হারবার এলাকায় ৬টি স্থানে ৩৫ দশমিক ১১ লক্ষ ঘনমিটার ড্রেজিং এর কাজ করা হচ্ছে। ড্রেজিং কাজ সম্পন্ন হলে মংলা বন্দরের জেটি ও মুরিং বয়ায় ৭ দশমিক ৫ মিটার ড্রাফটের জাহাজ ভিড়ানোর জন্য যথাযথ গভীরতা সংরক্ষণ করা সম্ভব হবে।
নৌ-পরিবহণ মন্ত্রী আরও বলেন, একটি বিশেষ মহল দেশের মধ্যে অরাজকতা সৃষ্টি করছে। হরতালের নামে গাড়িতে অগ্নিসংযোগ করে নিরীহ মানুষ হত্যা করছে।
সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন নৌ-পরিবহণ মন্ত্রণালয়ের সচিব সৈয়দ মনজরুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন বাগেরহাট-৩ আসনের সংসদ সদস্য বেগম হাবিবুন নাহার, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক এবং চীনা দূতাবাসের অর্থনৈতিক ও বাণিজ্যিক কাউন্সিলর মি. ওয়াং জিজ্যাং। এতে স্বাগত বক্তৃতা করেন মংলা বন্দরের চেয়ারম্যান কমোডর এইচ আর ভূঞা, বিএন।
এদিকে, শুক্রবার বিকেলে মন্ত্রী সাতক্ষীরা বাস টার্মিনালে বাস মালিক শ্রমিক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন নৌ পরিবহণ মন্ত্রী শাজাহান খান। সাতক্ষীরা বাস মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আছাদুল হকের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, সহ-সভাপতি রহিম বক্স দুদু, সাতক্ষীরা বাস ট্রাক শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি রবিউল ইসলাম প্রমুখ। পরে মন্ত্রী হরতালে পিকেটারদের হাতে নিহত পারুলিয়ার শ্রমিক লীগের নেতা, বাস চালক আলমগীর হোসেনের পরিবারের নিকট প্রধানমন্ত্রী কর্তৃক তিন লাখ টাকা অনুদানের চেক হস্তান্তর করেন।

শেয়ার