৮৪ ঘন্টা হরতালের তৃতীয় দিনেও যশোরে মাঠে নেই ১৮ দলের নেতাকর্মীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ ১৮ দলের ডাকা হরতালের তৃতীয়দিন গতকালও পিকেটারদের দেখা মেলেনি। হরতাল বিরোধীদের প্রতিরোধ মিছিলের ভয়ে মাঠে নামেনি জামায়াত বিএনপি ক্যাডাররা। ফলে শহর ও শহরতলীতে মানুষের স্বাভাবিক কর্মকান্ড লক্ষ্য করা গেছে। ১৮ দলের ডাকা অবৈধ হরতাল জনগণই প্রত্যাখ্যান করেছে। হরতাল বিরোধী মিছিলে অংশ নেয় ছাত্রলীগ ও শ্রমিকলীগের নেতৃবৃন্দ।
রোববার থেকে শুরু হয়েছে ১৮ দলের ৮৪ ঘন্টা হরতাল। হরতালে জামায়াত-বিএনপি’র তান্ডবের ভয়ে সাধারণ মানুষ আতংকিত হলে মাঠে নামে আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এরপর হরতাল বিরোধী মিছিলে তারা স্বতস্ফূর্তভাবে অংশ নেয়। ভয়ে পথ ছাড়ে জামায়াত-বিএনপিসহ ১৮ দলের নেতাকর্মীরা। একটানা হরতালে মানুষের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। মঙ্গলবার ছিল হরতালের তৃতীয় দিন। এদিনও ১৮ দলের কোন নেতাকর্মীকে রাজপথে দেখা যায়নি। তবে হরতাল বিরোধী মিছিলে এদিন রাজপথে নামে ছাত্রলীগ, শ্রমিক লীগসহ বিভিন্ন শ্রেণির মানুষ। জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আরিফুল ইসলাম রিয়াদের নেতৃত্বে শহরের মনিহার এলাকা থেকে হরতাল বিরোধী মিছিল শুরু হয়। মিছিলটি গাড়িখানা দলীয় কার্যালয়ের সামনে শেষ হয়। মিছিলে অংশ গ্রহণ করে ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি বিএম জাকির, রবিউল ইসলাম, সোহাগ, মীর হামিদুর রহমান, লাভলু, মাহবুব মিলন, জসীম উদ্দিন, মহিউদ্দিন রিমন, শহর আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এসএম ইউসুফ সাঈদ, শ্রমিক লীগ নেতা সেলিম রেজা মিঠু, হারুন-অর রশিদ ফুলু, মিজানুর রহমান মিজু প্রমুখ।
এদিকে হরকালে শহরে ভ্যান রিক্সা ও ইজিবাইক চলাচল ছিল স্বাভাবিক। শহরের বিভিন্ন দোকানপাট খুলতে দেখা যায়। কোথাও পিকেটিংয়ের কোন খবর পাওয়া যায়নি।

শেয়ার