মণিরামপুরে ৫ম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষিত ॥ ধর্ষক পলাতক

নিজস্ব প্রতিবেদক, মণিরামপুর ॥ মণিরামপুরে স্টুডিওতে ছবি তুলতে এসে ধর্ষণের শিকার হয়েছে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রী। রোববার সন্ধ্যায় পৌরশহরের উত্তর মাথার তুলি স্টুডিওতে এঘনা ঘটে। ঘটনার পর স্টুডিও মালিক ধর্ষক শিমুল রায় পালিয়ে যায়।
জানাযায়, ঘটনারদিন দেবিদাসপুর গ্রামের জনৈক দিনমজুরের কণ্যা প্রাথমিক সমাপনী পরিক্ষার্থী তার মামার সাথে ওই স্টুডিওতে ছবি তোলার জন্য আসে। এ সময় তার মামা তাকে স্টুডিওতে রেখে বাজারের মধ্যে ব্যক্তিগত কাজে যায়। এ সুযোগে স্টুডিও মালিক ছবি তোলার কথা বলে ভিতরে নিয়ে তার উপর পাশবিক নির্যাতন চালায়। এ ঘটনার পর ছাত্রীটিকে অসুস্থ অবস্থায় দোকানের বাইরে রেখে ধর্ষক শিমুল তার স্টুডিও বন্ধ করে পালিয়ে যায়। এরপর তার মামা এসে তাকে অসুস্থ অবস্থায় দেখে এবং নির্যাতনের ঘটনা জানার পর মামলা করতে থানায় যাওয়ার চেষ্টা করলে একটি চক্র এতে বাধা দিয়ে উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ও আ’লীগ নেত্রী নাজমা খানমের বাসায় নিয়ে যায়। পরে এই ঘটনা তিনি মণিরামপুরের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও থানার ওসিকে অবহিত করেন। এব্যাপারে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, সব ঘটনা ইউএনও সাহেবকে জানানো হয়েছে। স্টুডিও মালিক সমিতির সভাপতি শাহিনুর রহমান জানান, এর আগেও শিমুলের বিরুদ্ধে এমন একাধিক অভিযোগ রয়েছে। নির্যাতনের শিকার ছাত্রীর মামা জানান, ঘটনাটি টাকার বিনিময়ে মিমাংসা করতে এবং থানায় মামলা না করতে একটি চক্র তৎপর রয়েছে।

শেয়ার