বেনাপোল স্থলবন্দর এলাকায় তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে ট্রাকজট

benapol
বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধি॥ দেশব্যাপী হরতালের দ্বিতীয় দিনে বেনাপোল-পেট্টাপোলস্থল বন্দর দিয়ে আমদানি রফতানিবাহি ট্রাক চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। দেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর এলাকায় দীর্ঘ তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে দেখা দিয়েছে পণ্যজট। ব্যবসায়ীরা তাদের আমদানিকৃত মালামাল বন্দরের শেড থেকে ট্রাকে লোড আনলোড করতে পারলেও কারখানাসহ নিজস্ব প্র্রতিষ্ঠানে নিতে পারছেনা। যে কারণে বন্দরের রাস্তায় সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে রয়েছে শত শত ট্রাক।
বেনাপোল কাস্টমস পরিদর্শক নুরইসলাম জানান, রোববার ৩২৭ট্রাক পণ্য ভারত থেকে আমদানি হয়েছে। তবে সকাল থেকে এপর্যন্ত কোন ট্্রাক প্রবেশ করেনি। ভারতে ২শতাধিক খালি ট্রাক ফিরে গেছে ।
বন্দর ওয়্যারহাউজ পরিদর্শক রবিউল ইসলাম বলেন, গতকাল সকাল থেকে ১২৮ট্রাক পণ্য ভারতে রফতানি হয়েছে। দেশের ঢাকা চিটাগাং ও খুলনা থেকে রফতানিবাহী কোন ট্রাক হরতালের কারনে বেনাপোল বন্দরে প্রবেশ করেনি। তবে গতকালকে আসা ৩৮ট্রাক পণ্য সোমবার ভারতে রফতানি হয়েছে।
বন্দর সূত্রে জানা গেছে, বেনাপোল স্থলবন্দরে ৩৮ হাজার টন পণ্যের ধারণমতা রয়েছে। হরতালে পণ্য খালাস না হওয়ায় তা বেড়ে দাঁড়ায় ৬০ হাজার টনে। আমদানিকারক ও সিঅ্যান্ডএফ এজেন্টরা বলছেন, হরতালে পণ্য খালাস করতে না পেরে ব্যবসায়ীদের আর্থিক তির সম্মুখীন হতে হয়েছে। গুনতে হয়েছে শেডের অতিরিক্ত ভাড়া।
বেনাপোল কাস্টমের সহকারী কমিশনার সাধন কুমার কুন্ডু জানান, হরতালে পণ্য আমদানি হলেও খালাস বন্ধ হয়ে পড়ে। হরতাল শেষে ব্যবসায়ীরা মালামাল খালাস শুরু করার সময় পণ্যজট বাধতে পারে।

শেয়ার