টেলিভিশনের দুটি মনোনয়ন

Television
সমাজের কথা ডেস্ক॥ এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের চলচ্চিত্র নিয়ে ‘এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন অ্যাওয়ার্ড (এপিএসএ) ২০১৩’-এর সেরা চলচ্চিত্র ও সেরা চিত্রনাট্য বিভাগের জন্য মনোনীত হয়েছে মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘টেলিভিশন’।

‘বাংলা ছায়াছবি সম্মুখপানে’ শিরোনামের এক সংবাদ সম্মেলনে খবরটি ঘোষণা করেন ইমপ্রেস টেলিফিল্ম লি. ও চ্যানেল আই-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ফরিদুর রেজা সাগর। ঢাকার চ্যানেল আই ভবনে আয়োজিত ওই সম্মেলনে ফারুকীর সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সিনেমাটির চিত্রনাট্যকার আনিসুল হক।

অনুষ্ঠানে জানান হয়, জুরিদের চূড়ান্ত বিচারে পুরস্কৃতদের নাম ঘোষণা করা হবে ১২ ডিসেম্বর। ওইদিন অ্যাওয়ার্ড নাইটে অংশ নেবেন ফরিদুর রেজা সাগর, আনিসুল হক, ফারুকী ও অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা।

এবারের ৭ম আসরে ভিন ভিন্ন বিভাগে ওই অ্যাওয়ার্ডের জন্য প্রতিযোগিতা করছে ৪১টি দেশের ২৩০টি চলচ্চিত্র। এদের মধ্যে রয়েছে কান, ভেনিস, বার্লিনের চলচ্চিত্র উৎসবে সাড়া জাগানো বেশকয়েকটি সিনেমা।

এপিএসএ-এ এবার সর্বোচ্চ তিনটি মনোনয়ন লাভ করেছে হানি আবু-আসাদের ফিলিস্তিনি চলচ্চিত্র ‘ওমর’। বাংলাদেশের ‘টেলিভিশন’সহ দুটি করে মনোনয়ন লাভ করেছে আসগার ফারহাদির ইরানি ভাষার চলচ্চিত্র ‘দ্যা পাস্ট’ ও হিরোকাজু কোরিয়াদারের জাপানি চলচ্চিত্র ‘লাইক ফাদার, লাইক সান’।

একটি করে মনোনয়ন লাভ করেছে- ওং-কার ওয়াইের চাইনিজ চলচ্চিত্র ‘গ্র্যান্ড মাস্টার’, হাইফা আল-মনসুর পরিচালিত সৌদি আরবের চলচ্চিত্র ‘ওয়াজদা’, এন্থনি চ্যান পরিচালিত সিঙ্গপুরের চলচ্চিত্র ‘ইলো ইলো’ এবং রিতেশ বাত্রা পরিচালিত ভারতীয় সিনেমা ‘লাঞ্চ বক্স’ ।

ইউনেস্কোর সহযোগিতায় এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের চলচ্চিত্রের উৎকর্ষ বিচার ও মূল্যায়নের জন্য ওই অ্যাওয়ার্ড ২০০৭ সাল থেকে প্রদান শুরু করে অস্ট্রেলিয়ার ব্রিজবেনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান এশিয়া প্যাসিফিক স্ক্রিন একাডেমি।

চলচ্চিত্র নির্বাচনের পাশাপাশি ব্রিজবেনে অবস্থিত একাডেমির হেড-কোয়ার্টার থেকে গুরুত্বপূর্ণ সিনেমাগুলো প্রতিযোগিতার জন্য আমন্ত্রণ জানায় তারা। পরবর্তীতে নমিনেশন কাউন্সিলের বিচারে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র, শ্রেষ্ঠ চিত্রনাট্য, শ্রেষ্ঠ পরিচালক, শ্রেষ্ঠ চিত্রগ্রাহক, শ্রেষ্ঠ অভিনেতা ও শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী ক্যাটাগরিতে ৫টি করে ছবিকে মনোনয়ন দেওয়া হয়। তবে এ বছর শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিভাগে ৬টি ছবিকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে।

শেয়ার