একজন বাবা হয়ে এসব সহ্য করা যায় না: জয়

joy
সমাজের কথা ডেস্ক॥ হরতালে মানুষের শরীরে আগুন দেয়া কোনো রাজনৈতিক দলের কাজ হতে পারে না বলে মন্তব্য করেছেন সজীব ওয়াজেদ জয়। তিনি বলেছেন, যারা এমনটি করে তারা মানুষের জাতের মধ্যে পড়ে না।
মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে হরতালে দগ্ধদের দেখতে গিয়ে জয় সাংবাদিকদের বলেন, “মানুষকে আগুনে পুড়িয়ে ফেলা একদম অমানবিক। এটা কোনো রাজনৈতিক দলের কাজ হতে পারে না। এখানে আমি পুড়ে যাওয়া শিশুদেরও দেখলাম। একটি শিশুকে দেখে আমার চোখে কান্না এসে গেছে। একজন বাবা হিসেবে এটা সহ্য করার মতো নয়।”
হরতালকারীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, “ওরা মানুষের জাত না। রাজনৈতিক দল তো দূরের কথা। ওরা এখন সন্ত্রাসী দলে পরিণত হয়েছে। এদের প্রতি আমার ঘৃণা হচ্ছে।”
মানুষ পোড়ানোর ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের ‘কঠিন শাস্তি’ হওয়া উচিৎ বলে মন্তব্য করে এই তরুণ তথ্য-প্রযুক্তিবিদ।
জয়ের ঢাকা মেডিকেলে যাওয়ার ঘণ্টা দুয়েক আগে যাত্রীবাহী একটি বাসে আগুন দেয়া হয়। এতে দগ্ধ হয় অন্তত সাত জন।
সম্প্রতি বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলীয় জোটের ডাকা তিনদফা হরতালে বোমা হামলা ও গাড়িতে অগ্নিসংযোগের কারণে দগ্ধ হওয়া ৪৪ জন বার্ন ইউনিটে ভর্তি রয়েছে, যাদের মধ্যে কয়েকজন শিশুও আছে।
এছাড়া সাম্প্রতিক হরতালে সারাদেশে প্রায় ২০ জন নিহত হয়েছে বলে সরকারের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে।
তাহলে সরকার কি মানুষের নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ হচ্ছে?- জানতে চাওয়া হলে সজীব ওয়াজেদ বলেন, “যারা অর্থ দিচ্ছে ও নাশকতার পরিকল্পনা করছে তাদের আমরা গ্রেপ্তার করছি।”
বিকেল সোয়া ৪টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ঢোকেন জয়। প্রায় আধাঘণ্টা কয়েকটি ওয়ার্ড পরিদর্শন করে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তিনি।

শেয়ার