শৈলকুপায় দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষ॥ আহত ১৫

শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি॥ আধিপত্য বিস্তার নিয়ে ঝিনাইদহের শৈলকুপায় দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ১০জন শৈলকুপা ও ১ জনকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করায় পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।
রবিবার দুপুরে শৈলকুপার পৌরসভা এলাকা মোতনেজা-শ্যামপুর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।
পুলিশ ও এলাকাবাসী জানান, দীর্ঘদিন ধরে পৌরসভাধীন মোতনেজা ও শ্যামপুর গ্রামের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। বিরোধপূর্ণ দুটি গ্রাম মোতনেজার নেতৃত্বে মতিয়ার খাঁ ও শ্যামপুর গ্রামের নেতৃত্বে রয়েছে নায়েব আলী মেম্বর। গত ঈদের আগে ভিজিএফের চাল দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই গ্রামে আবারো নতুন করে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এই ঘটনার পর দুটি গ্রামের মধ্যে উত্তেজনা চলে আসছিল। রবিবার সকালে শ্যামপুর গ্রামের রিংকু নামের এক ছাত্র পার্শ্ববর্তী সিদ্ধি গ্রাম থেকে প্রাইভেট পড়ে ফেরার পথে মোতনেজা গ্রামের লোকজন তাকে মারধর করে। খবরটি গ্রামে চাউর হলে উভয় গ্রামে উত্তেজনা দেখা দেয়। ঘটনাটি নিরসনে সোমবার ১০টায় বৈঠক হওয়ার কথা হয়। কিন্তু হঠাৎ করে উভয় গ্রামের লোকজন ঢাল-শড়কি, রামদা ও বিভিন্ন গ্রাম্য অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে শৈলকুপা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। সংঘর্ষে উভয় গ্রামের অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন। আহতদের মধ্যে শ্যামপুর গ্রামের মিলন (৩৫), মন্নু (২৮), জাহাঙ্গীর (২৫), নুরুল ইসলাম (৩৫) ও মোতনেজা গ্রামের সবুজ (১৮), হাসান (১৩), চুকা (৩৮) সহ ১০ জনকে শৈলকুপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি ও মতনেজা গ্রামের হান্নান নামের ১ জনকে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নেওয় হয়েছে।
শৈলকুপা থানার ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু’দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। বর্তমান পরিস্থিতি পুলিশের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।

শেয়ার