টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দেশের প্রথম গ্রিন গ্যালারি

green
বাংলানিউজ॥
দেশের প্রথম গ্রিন গ্যালারি উন্মোচন হবে এই স্টেডিয়ামে। লালমাটির পাহাড়ে স্তর তৈরি করে লাগানো হবে দ্রুত বর্ধনশীল সবুজ বৃক্ষরাজী। কাজ চলছে অবিরাম। খুব শিগগিরিই উন্মোচন করা হবে স্টেডিয়ামের বৈচিত্রময় গ্রিন গ্যালারি।

বিভাগীয় স্টেডিয়ামের পশ্চিমে টিলার ওপর গ্রিন গ্যালারির কাজের দিকেই এখন দশর্নাথীর আকর্ষণ। সেখানে ৩/৪ ধাপের ছোট গ্যালারী নির্মাণ করা হবে। যেখানে গাছের ছায়ায় ও সবুজ ঘাসে গা হেলিয়ে উপভোগ করা যাবে খেলা। স্টেডিয়ামের সবচেয়ে উুচু হবে এই গ্যালারি। যেখান থেকে পুরো মাঠ ও মাঠের চারপাশ চোখে পড়বে। আর পেছনে চোখ বুলানো যাবে দু’টি পাতা একটি কুঁড়ির বাগানে।

বাংলাদেশের কোনো স্টেডিয়ামে এরকম উদ্যোগ এবারই প্রথম বলে জানিয়েছেন স্টেডিয়ামের কাজ তদারকির দায়িত্বে থাকা সিলেট বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সহ সাধারণ সম্পাদক জুম্মা আব্বাস রাজু।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের স্টেডিয়ামগুলো মধ্যে অবশ্যই সবচেয়ে সুন্দর আর বিশ্বের অন্যতম প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ঘেরা স্টেডিয়াম হবে সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়াম। বিশ্বের বিভিন্ন দেশে গ্রিন গ্যালারি থাকলেও বাংলাদেশে এতো দিন তা ছিলো না। সবুজের মাঝে বসে খেলা উপভোগ করার ব্যতিক্রমী স্বাদ পাওয়া যাবে এখানে। থাকবে ক্যান্টিন কফিশপের ব্যবস্থা।

সম্প্রতি স্টেডিয়াম ঘুরে দেখা গেছে, গ্রিন গ্যালারির লাল মাটি সাজানো চলছে। কফিশপ, ট্যান্ট স্থাপন বাকি রয়েছে। চলছে মাটি গোছানোর কাজ।

গ্রিন গ্যালারি ঘুরে দেখতে এখনই ভিড় জমাচ্ছেন সিলেটের ক্রীড়ামোদী ও ক্রিকেটপ্রেমীরা। সেখানেই বাংলানিউজের সঙ্গে কথা বলেন ক্রিকেটপ্রেমী ফয়সল খাঁন।

তিনি জানান, আনন্দ-উচ্ছাস আর প্রকৃতির মাঝে হারিয়ে গিয়ে খেলা উপভোগের জন্য সিলেটে এমন সুযোগ নিতে চান তিনি।

আব্দুস সামাদ নামের আরেক ক্রিকেটপ্রেমী বলেন, গ্রিন গ্যালারির কাজ শেষ হলে প্রাকৃতিক চা-বাগান ঘেরা স্টেডিয়ামের সৌন্দর্য্য বহুগুণে বাড়বে। এটা বাড়তি পাওয়া।

ঘুরে দেখা গেছে, গ্রিন গ্যালারির একেবারে নিচে কয়েকটি স্তর রয়েছে। এর ডান পাশেই মূল গ্যালারিতে জায়ান্ট স্ক্রিন এবং ইলেকট্রনিক স্কোরবোর্ড নির্মাণ করা হয়েছে। গ্রান্ড স্ট্যান্ড নির্মাণ শেষে এখন চলছে ধোঁয়া মোছার কাজ। গ্যালারির বেশিরভাগ অংশে চেয়ার বসানো শেষ। বৈদ্যুতিক সংযোগ দেওয়া হয়েছে। নভেম্বরে শেষ হবে সম্পূর্ণ কাজ এমনটি জানিয়েছেন স্টেডিয়াম কর্তৃপক্ষ। আগামী বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম পর্বের বেশ কয়েকটি খেলা হবে এই স্টেডিয়ামে।

শেয়ার