জমি নিয়ে বিরোধে খুন হয় চুন্নু ৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ যশোরে অবৈধভাবে জমি দখলে বাধা দেয়ায় আক্তার আলী চুন্নু নামে এক যুবক খুনের ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। তবে ঘটনার দুই দিন পার হলেও কোন অপরাধীকে আটক করতে পারেনি পুলিশ। নিহতের পিতা সদর উপজেলার পাগলাদাহ গ্রামের দক্ষিণপাড়ার শাহজাহান আলী বাদী হয়ে রোববার কোতোয়ালি থানায় এ মামলা করেন। মামলায় আসামি করা হয়েছে ৫ জনের নামসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩/৪ জনকে। আসামিরা হলো, পাগলাদাহ গ্রামের গাঁজা বিক্রেতা মোজাহার আলীর ছেলে সহিদ, শের আলী বিশ্বাসের ছেলে এজাজুল ইসলাম, আসমত আলীর ছেলে শফিয়ার রহমান, লুকমান হোসেন ওরফে মইনোর ছেলে শামিম শিকদার ও রুপদিয়া গ্রামের ইনতাজ আলীর ছেলে ফিরোজ হোসেন।
নিহতের পিতা শাহজাহান আলী জানান, শহরতলীর পাগলাদাহ বিহারী কলোনি কবরস্থানের পাশে আয়শা পল্লী নামে একটি আবাসিক এলাকায় অবৈধভাবে জমি দখলের জন্য আসামিরা দীর্ঘদিন যাবৎ হুমকি দিয়ে আসছিল। এ ঘটনায় আক্তার আলী চুন্নু বাধা দিলে তারা দিনে দিনে ক্ষীপ্ত হতে থাকে। এরই জের ধরে শনিবার বিকেলে পাগলাদাহ গ্রামের নওদাগা মোড়ের একটি সেলুন থেকে দাড়ি সেভ করে আক্তার আলী চুন্নু ও তার বন্ধু ফরহাদ হোসেন ওরফে শ্যাম্পু ও তবিকে সাথে নিয়ে বাড়িতে যাচ্ছিল। বিকেল ৫ টা ৩৫ মিনিটের সময় গ্রামের মিরাজের মুদি দোকানের সামনে পৌছানো মাত্র আসামিরা তাদের লক্ষ্য করে পিস্তল দিয়ে গুলি করে। কিন্তু ওই গুলি লক্ষ্যভ্রষ্ট হওয়ায় চুন্নুর বন্ধুরা দৌড়ে পালিয়ে গেলেও চুন্নুকে তারা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। তবে ঘটনার দুই দিন পার হলেও কোন আসামি আটক না হওয়ায় চরম আতংকের মধ্যে আছে নিহতের পরিবার।

শেয়ার