ব্যাপক হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে পাক তালেবান

pak
বাংলানিউজ॥
কট্টরপন্থি মোল্লা ফজুল্লাহকে প্রধান নেতা হিসেবে মনোনীত করার পর পাকিস্তান সরকারের বিরুদ্ধে ব্যাপকভাবে ধারাবাহিক হামলার প্রস্তুতি নিচ্ছে দেশটির জঙ্গি সংগঠন তেহরিক-ই-তালেবান (টিটিপি)।
শুক্রবার টিটিপির পক্ষ থেকে বলা হয়, সাবেক প্রধান হাকিমুল্লাহ মেহসুদকে মার্কিন ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যায় সহযোগিতা করার জন্য সরকারের বিরুদ্ধে ধারাবাহিকভাবে চরম প্রতিশোধ নেওয়া হবে।
গত ১ নভেম্বর মার্কিন ড্রোন হামলায় হাকিমুল্লাহ মেহসুদ নিহত হওয়ার পর পাক সরকারের সঙ্গে শান্তি আলোচনার প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান ও লড়াই চালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্তে অটল অবস্থানের জন্য পরিচিত ফজুল্লাহর নামই টিটিপি প্রধান হিসেবে বেশি উচ্চারিত হচ্ছিল।
শেষ পর্যন্ত কট্টরপন্থি ফজুল্লাহকেই প্রধান মনোনীত করলো প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের সরকারের সঙ্গে শান্তি আলোচনায় আগ্রহ দেখানো টিটিপির শুরা কাউন্সিল।
একটি অজ্ঞাত স্থান থেকে শুরা কাউন্সিলের প্রধান আসমাতুল্লাহ শাহীন ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম রর্যটার্সকে মোবাইল বার্তায় বলেন, হাকিমুল্লাহকে হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে আমরা নিরাপত্তা বাহিনী, সরকারি কার্যালয় ও রাজনৈতিক নেতাদের টার্গেট করে হামলা চালাবো।
তিনি হুমকি দিয়ে বলেন, প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের দুর্গ খ্যাত পাঞ্জাব প্রদেশের সরকারি কার্যালয় ও সেনাবাহিনীর স্থাপনা উড়িয়ে দেওয়া হবে।
শাহীন বলেন, সরকারকে টার্গেট করলেও এই বিষয়টি স্পষ্ট করতে চাই যে, বেসামরিক লোকজন, বাজার, কিংবা লোক সমাগম টার্গেট করে হামলা চালানোর কোনো পরিকল্পনা নেই আমাদের। অতএব সাধারণ জনগণের আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।
টিটিপি মুখপাত্র শাহীন বলেন, হাকিমুল্লাহ মেহসুদকে হত্যা করতে মার্কিন ড্রোন হামলার ব্যাপারে পাক সরকারের কাছে সবরকমের তথ্য ছিল এবং তারা সহযোগিতাও করেছিল। পাক সরকার আমেরিকার দাস। এটা একটি আমেরিকান উপনিবেশ।
উল্লেখ্য, দেশের সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘনের কথা বলে প্রকাশ্যে মার্কিন ড্রোন হামলার বিরোধিতা করলেও সম্প্রতি ফাঁস হওয়া উইকিলিকসের তথ্য মতে, পাকিস্তান সরকারের সহযোগিতায়ই দেশটির দুর্গম অঞ্চলে এ ধরনের হামলা চালিয়ে যাচ্ছে মার্কিন বিশেষ বাহিনী।

শেয়ার