বিশ্বশক্তি-ইরান চুক্তি হচ্ছে!

iran
বাংলানিউজ ॥
পরমাণু ইস্যু নিয়ে বিশ্বের শক্তিধর ছয় রাষ্ট্রের সঙ্গে ইরানের চুক্তি হতে যাচ্ছে। চুক্তির খসড়া তৈরি করা হচ্ছে। শুক্রবার এ খসড়া তৈরি করা হবে বলে জানিয়েছে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এদিন আলোচনার পর চুক্তিও হতে পারে।
চুক্তির সম্ভাবনার বিষয়টি আরও জোরালো করেছে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রী জন কেরির জেনেভা সফর। মধ্যপ্রাচ্যে সফরত জন কেরি জেনেভায় ইরান ও বিশ্বশক্তি ৫+১ এর বৈঠকে যোগ দিতে যাচ্ছেন। শুক্রবার বিকেলে তিনি জেনেভায় পৌঁছবেন।
জানা গেছে, জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী পাঁচ সদস্য-যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, চীন ও রাশিয়ার সঙ্গে ইরানের আলোচনা ইতিবাচকভাবে চলছে এবং অগ্রগতি হয়েছে।
চুক্তি হলে উপসাগরীয় অঞ্চলে দীর্ঘ দিনের উত্তেজনা প্রশমিত হবে এবং মধ্যপ্রাচ্যে নতুন যুদ্ধের ঝুঁকিও আপাতত থাকবে না।
যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা জানান, ইউরোপীয় ইউনিয়নের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ক্যাথেরিন অ্যাশটনের আমন্ত্রণে পররাষ্ট্র মন্ত্রী কেরি শুক্রবার বিকেলে সুইজারল্যান্ডের জেনেভায় যাচ্ছেন। আলোচনায় মতপার্থক্য কমাতেই তিনি এ সফর করছেন।
তবে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেনেভার আলোচনায় অংশ নেবেন কিনা তা স্পষ্ট নয়।
বৃহস্পতিবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফ বলেন, ইরান পুরোপুরিভাবে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কর্মসূচি বন্ধ করবে না কিন্তু আলোচনার টেবিলে চুক্তির বিভিন্ন ইস্যু রয়েছে। তিনি বলেছেন, ইরানের পরমাণু ইস্যু অসমাধান যোগ্য নয় এবং তেহরান অবিশ্বাসের দেওয়াল টপকাতে চায়।
পশ্চিমাদের সন্দেহ, পরমাণু অস্ত্র তৈরির জন্য ইরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কর্মসূচি চালাচ্ছে। বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্র নিশ্চিত করেছে, ‘সুক্ষ্ম ও যাচাইযোগ্য পদক্ষেপের’ বিপরীতে কিছু নিষেধাজ্ঞা শিথিল করা হবে।
তবে ইরানের সঙ্গে পরমাণু চুক্তি ‘ঐতিহাসিক ভুল’ হবে বলে দাবি করেছে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। ইরানে ছলনা করছে বলে অভিযোগ করেন তিনি। জেনেভায় যাওয়ার আগে নেতানিয়াহুর সঙ্গে সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে কেরির।

শেয়ার