১৯৯তম টেস্টে শচীনের ২০০তম উইকেট

sachin
বাংলানিউজ ॥
ব্যাটের জাদুকর শচীন ক্রিকেট জীবনের অন্তিমলগ্নে এসে চমক দিলেন বলে। ক্যারিয়ারের ১৯৯তম টেস্টে তুলে নিলেন নিজের ২০০তম উইকেট।
ব্যক্তিগত ৫ রানের মাথায় শচীনের বলে এলবিডাব্লিউ হয়ে সাজঘরে ফেরেন শিলিংফোর্ড। মুহূর্তেই দর্শকদের কড়তালি আর চিৎকারে জেগে ওঠে গোটা ইডেন।
সোমবার প্রিয় খেলোয়াড়ের দেওয়া এই বাড়তি উপহার পেয়ে ইডেন গার্ডেনের দর্শকরা মেতে ওঠে আনন্দোল্লাসে।
এর আগে, বৃহস্পতিবার সকালে শচীনের প্রতিকৃতি খোদাই করা পয়সাতে টস করে খেলা শুরু হয়।
ভারত ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার প্রথম টেস্টে সব আলো এখন শচীন টেন্ডুলকারের উপরই। কলকাতার ইডেন গার্ডেনে এটিই হবে ভারতীয় ব্যাটিং তারকার শেষ ম্যাচ। ক্যারিয়ারের ১৯৯তম ও স্মরণীয় এই টেস্টে এখনও ব্যাট করার সুযোগ না পেলেও বল হাতে দুই ওভারে ১ উইকেট নিয়েছেন লিটল মাস্টার। বুধবার প্রথম দিন ব্যাট করতে নেমে ক্যারিবীয়দের প্রথম ইনিংস গুটিয়ে যায় ২৩৪ রানে। জবাবে বিনা উইকেটে ৩৭ রানে দিন শেষ করেছে স্বাগতিকরা।
১০৮টি ওয়ানডে ম্যাচ খেলে প্রথমবারের মতো এই ম্যাচে টেস্ট ক্যাপ পেলেন ওয়ানডের তৃতীয় দ্বিশতক পাওয়া ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা। স্বাগতিকদের হয়ে আরেকজনের টেস্ট অভিষেক হলো, পেসার মোহাম্মেদ সামি। ডানহাতি এই পেসার ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্ট স্মরণীয় করে রাখলেন সবচেয়ে বেশি চার উইকেট নিয়ে। কাইরন পাওয়েল, মারলন স্যামুয়েলস, দিনেশ রামদিন ও শেল্ডন কোতরেলকে সাজঘরে ফিরিয়ে প্রথম ইনিংসে সফরকারীদের ২৩৪ রানে বেধে দিতে অবদান রাখেন সামি।
এর আগে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে ৪৭ রানে দুই উইকেট হারিয়ে বসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ক্রিস গেইল ১৮ ও পাওয়েল ২৮ রানে আউট হন।
তবে স্যামুয়েলস ও ড্যারেন ব্রাভোর ৯১ রানের ইনিংস সেরা তৃতীয় উইকেট জুটিতে ওই ধাক্কা সামলে ওঠে সফরকারীরা। ৬১ বলে স্যামুয়েলস ১৯তম টেস্ট ফিফটির দেখা পান মধ্যাহ্ন বিরতির পরপরই। ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান ৬৫ রানে সামির দ্বিতীয় শিকার হলে অন্য ব্যাটসম্যানরা বড় অবদান রাখতে ব্যর্থ হন।
চা বিরতির খানিক আগে শচীন তার দ্বিতীয় ওভারে সাজঘরে পাঠান শেন শিলিংফোর্ডকে (৫)। এলবিডব্লুর ফাঁদে ফেলে ক্যারিয়ারের ৪৬তম উইকেট নেন এই ডানহাতি অফ ব্রেকার।
ক্যারিবীয়দের ইনিংসে অল্পস্বল্প অবদান রেখেছে শিবনারায়ন চন্দরপলের ৩৬ ও ব্রাভোর ২৩ রান।
দুটি উইকেট নিয়ে সামিকে সহায়তা করেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। একটি করে পেয়েছেন প্রজ্ঞান ওঝা, ভুবনেশ্বর কুমার ও শচীন।
ব্যাট করতে নেমে প্রথম দিন ১২ ওভার খেলার সুযোগ পেয়েছে স্বাগতিকরা। শিখর ধাওয়ান ২১ ও মুরালি বিজয় ১৬ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেন।

শেয়ার