সুরক্ষিত নয় ‘বিটকয়েন’ ব্যবস্থা

Bitcoin
সমাজের কথা ডেস্ক॥
গবেষকদের মতে অনলাইনে প্রচলিত ভার্চুয়াল মুদ্রা বিটকয়েন সুরক্ষিত নয়। নিরাপত্তায় ফাঁকফোকরের সুযোগে যে কারও পক্ষে গোটা ভার্চুয়াল অর্থব্যবস্থায় নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা করা সম্ভব।

এক প্রতিবেদনে বিবিসি জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের কর্নেল ইউনিভার্সিটির দুই বিজ্ঞানী বিটকয়েনের সুরক্ষায় কীভাবে আক্রমণ হতে পারে সে বিষয়টি বের করেছেন। কেবল তাই নয়, গবেষকদের মতে এ রকম আক্রমণ হয়তো এখনই কোথাও হচ্ছে।

এক ব্লগ পোস্টে অধ্যাপক এমিন সুরের তার কাজের বিস্তারিত ব্যাখ্যা দিয়েছেন। বিটকয়েনের দুর্বলতা আবিষ্কারে তার সঙ্গে ছিলেন আরেক গবেষক ড. ইট্টাই আয়াল।

নতুন বিটকয়েন সাধারণত উৎপন্ন হয় যখন অনেকগুলো কম্পিউটার একত্রে কোনো জটিল ক্রিপ্টোগ্রাফিক ধাঁধার সমাধান করে। ওই সমাধানের পুরস্কার হয় একটি বিটকয়েন যার মূল্য ১৪৫ ইউরোর প্রায় সমান। সাধারণত প্রতি দশ মিনিটে একটি দল সমাধান বের করতে পারে। এ প্রক্রিয়াটিকে বলা হয় মাইনিং। যখনই নতুন বিটকয়েন আবিষ্কৃত হয় তখনই খবরটি ছড়িয়ে দেওয়া হয় এবং অন্যরা নতুন ধাঁধার সমাধানের কাজ শুরু করে।

অধ্যাপক এমিন সুরের মতে, কোনো স্বার্থপর দল ধাঁধার সমাধান করে বিটকয়েন জিতে সেটি না জানালে অন্যরা তখনও পুরনো ধাঁধা নিয়ে ব্যস্ত থাকবে; আর দলটি নতুন ধাঁধার সমাধান করে আরও বিটকয়েন হাতিয়ে নিতে পারবে। একটু হিসেব করে এগোলেই ধীরে ধীরে গোটা ব্যবস্থার নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নিতে পারবে বিজয়ী দলটি।

অধ্যাপক এমিন সুরের মতে, এই ব্যবস্থায় মূল দুর্বলতা হলে, এতে ধরেই নেওয়া হচ্ছে সবাই সৎ থাকবে এবং বিটকয়েনবিষয়ক সমাধান পাওয়ামাত্র সবার সঙ্গে শেয়ার করবে।

শেয়ার