রাতে গাড়িতে আগুন-বোমাবাজি

সমাজের কথা ডেস্ক॥ বিরোধী দলের ৬০ ঘণ্টা হরতালের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার রাতে রাজধানীতে বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন দেয়া হয়েছে। এতে অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন এক চালক।

এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন স্থানে হাতবোমার বিস্ফোরণও ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত তিনজন।

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলের হরতাল শুরুর আগের দিন থেকে বিভিন্ন স্থানে গাড়ি পোড়ানো ও বোমাবাজি চলছে। সাভারে গাড়িতে ছুড়ে মারা পেট্রোল বোমায় মারা গেছেন একজন।

গাজীপুরে গাড়ি পোড়ানোর ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অন্তত তিনজন।

মঙ্গলবার রাতে রাজধানীর হাজারীবাগ,শাহবাগ, গ্রিন রোড ও মানিকনগরে পাঁচটি বাসে আগুন দেয়া হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

হাজারীবাগে পুড়িয়ে দেয়া লেগুনার অগ্নিদ্ধ চালক আল আমিন (২৫) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ঢামেক পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মোজাম্মেল হক বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, বিডিআর এক নম্বর গেইট এলাকায় রাত সাড়ে ৯টার দিকে আল আমিনের লেগুনায় আগুন দেয় হরতালকারীরা।

আল আমিনের শরীরের ৩৫ শতাংশ পুড়ে গেছে বলে চিকিৎসক জানিয়েছেন।

রাত ১০টার দিকে বেইলি রোড ও শান্তিনগর এলাকায় বিস্ফোরিত বোমার জখম নিয়ে রেজাউল (৩৪) ও হারুন (৩৫) নামে দুই রিকশাচালক ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

প্রায় একই সময় শাহজাহানপুর এলাকা থেকে আকাশ নামে এক পথচারী বোমায় আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হন বলে পুলিশ কর্মকর্তা মোজাম্মেল জানান।

শাহবাগ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) এম এ জলিল বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে শাহবাগে গাজীপুরগামী একটি বাসে আগুন দেয়া হয়।

আগুন দেয়ার অভিযোগে জুনায়েদ (২৫) নামে এক যুবককে আটক করা হয়েছে বলে তিনি জানান। তবে ওই যুবক কোনো দল করেন কি না, তা জানাতে পারেননি পুলিশ কর্মকর্তা জলিল।

রাত ৯টার দিকে গ্রিন রোডে আল রাজী হাসপাতালে সামনে একটি বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। খবর পেয়ে দমকলকর্মীরা গিয়ে তা নেভায় বলে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের কর্মকর্তা মো. ফারহাদুজ্জামান জানান।

তিনি বলেন, সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে মানিক নগরে পুরনো দুটি ভলবো বাসে আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। বাস দুটি পরিত্যক্ত ছিল।

এদিকে সন্ধ্যার পর রাজধানী কোতয়ালি থানার কাছে দুটি ও চানখারপুল এলাকায় তিনটি এবং নয়া পল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের কাছে হাতবোমা বিস্ফোরণ ঘটেছে।

রাত ৮টার দিকে মহাখালীতে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম কার্যালয়ের সামনেও একটি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটে।

সন্ধ্যা থেকে রাত পর্যন্ত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন স্থানে সাতটি হাতবোমার বিস্ফোরণ ঘটেছে।

সন্ধ্যায় টিএসসির পাশের একটি এটিএম বুথের কাছে দুটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটে। একই সময়ে জসিমউদদীন হলের ক্যান্টিনের ছাদে বিস্ফোরণ ঘটে আরো দুটির।

সন্ধ্যা ৭টার দিকে মধুর ক্যান্টিনের কাছে তিনটি হাতবোমা বিকট শব্দে বিস্ফোরিত হয়।

এসব বিস্ফোরণে হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি।

এর আগে দুপুরে উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি এবং মল চত্বর থেকে চারটি হাতবোমা উদ্ধার করে পুলিশ।

এদিকে রাতে মুন্সীগঞ্জে দুটি বাসে আগুন দেয়া হয়েছে বলে বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের জেলা প্রতিনিধি জানিয়েছেন।

শহরের উপকণ্ঠ মুক্তারপুরে দাঁড়িয়ে থাকা দিঘিরপাড় পরিবহনের বাস দুটিতে হরতালকারীরা আগুন দেয় বলে সদর থানার ওসি শহীদুল ইসলাম জানিয়েছেন।

শেয়ার