‘এ দৃশ্য ভাবা যায় না’

burn
সমাজের কথা ডেস্ক॥ হরতালের আগুনে দগ্ধ কয়েকজনকে হাসপাতালে দেখতে এসে রাজনৈতিক সহিংসতার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করলেন ঢাকা মহানগর পুলিশের কমিশনার বেনজির আহমেদ।
বুধবার ঢাকা মেডিকেল কলেজের হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “স্বাধীনতার ৪০ বছর পর গরীব, হত-দরিদ্র, দিনমজুরদের জীবনে এমন করুণ দৃশ্য দেখতে হবে তা ভাবতে পারিনা।
“স্বাধীনতার ৪০ বছর পর এমন দৃশ্যের কথা ভাবা যায় না।”
নির্দলীয় সরকারের অধীনে আন্দোলনরত বিএনপি ও শরিকদের ৬০ ঘণ্টার হরতালের শেষ দিনে হাসপাতালে আসেন পুলিশ কমিশনার।
একই দাবিতে গত সপ্তাহের শুরুতেও টানা তিন দিন হরতাল করে বিরোধীদলীয় জোট। হরতালের এই ছয় দিনে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক বোমবাজি চলে, ভাংচুর-অগ্নি সংযোগের শিকার হয় বহু যানবাহন।
এসব ঘটনায় দগ্ধ অন্তত পনের জন গত তিনদিনে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। হিউম্যান হলার চালক আল আমিন, অটোরিকশা চালক আসাদ গাজী, পোশাক শ্রমিক নাসিমা আক্তার, কভার্ড ভ্যান চালক রোকন উজ্জামান, আটোরিকশার যাত্রী হাসু মিয়া, গাজীপুরের দাদী-নাতি রহিমা ও সুমি ও স্কুলছাত্র মনির হোসেনও রয়েছেন তাদের মধ্যে।
পুলিশ কমিশনার তাদের সঙ্গে কথা বলেনও এবং তাদের চিকিৎসার খোঁজ খবর নেন।
পরে হরতালে সহিংসতার সমালোচনা তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “যারা এ ঘৃণ্য অপরাধ করছে তারা গু্টকিয় লোক। তাদের এ সমাজে থাকার অধিকার নেই।”
পুলিশ হরতালে সাধারণ মানুষকে নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ কিনা জানতে চাইলে বেনজির বলেন, “পুলিশ সাধ্যমত নিরাপত্তা দিতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। তারপরও কিছু দুঃখজনক ঘটনা ঘটেছে। বিষয়গুলো অত্যন্ত দুঃখজনক।”

শেয়ার