সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট আইনের চূড়ান্ত অনুমোদন

বাংলানিউজ॥ সাংবাদিকদের কল্যাণের জন্য ‘বাংলাদেশ সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট আইন’ ২০১৩ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।
সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়।
বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূঁইঞা সাংবাদিকদের বলেন, বর্তমানে সাংবাদিক সহায়তা ভাতা বা অনুদান নীতিমালা-২০১২’র আলোকে সাংবাদিকদের এক কোটি টাকা অনুদান দেয়া হয়।
আইনে তহবিলের আওতা বাড়ানো হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, অসুস্থ, অস্বচ্ছল ও মৃত্যুজনিত কারণে সহায়তা প্রদান ছাড়াও সাংবাদিকদের কল্যাণের জন্য প্রকল্প অনুমোদন ও বাস্তবায়নের অধিকার রয়েছে। সাংবাদিকরা দায়িত্ব পালনকালে আহত হলেও অনুদান পাবেন। ট্রাস্টের মাধ্যমে সাংবাদিকদের জন্য বৃত্তির ব্যবস্থা ছাড়াও তাদের সন্তানদেরও বৃত্তি প্রদান করা হবে। এটি হবে সংবিধিবদ্ধ সংস্থা।
আইনের আওতায় ১৩ সদস্যের একটি ট্রাস্টি বোর্ড গঠন করা হবে বলে জানান মন্ত্রিপরিষদ সচিব।
ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান হবেন তথ্যমন্ত্রী, আর পদাধিকারবলে তথ্য সচিব ভাইস চেয়ারম্যান। পিআইবির মহাপরিচালক, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব পদমর্যাদার দু’জন, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ও মহাসচিব এর সদস্য হবেন।
আর একজন ব্যবস্থাপনা পরিচালককে সরকার নিয়োগ দেবেন। সরকার তিনজন সাংবাদিককে বোর্ডের সদস্য হিসেবে মনোনীত করবেন।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ট্রাস্টের মূল অর্থ দেবে সরকার। এছাড়াও সিটি করপোরেশনের মতো বিভিন্ন স্থানীয় সংস্থা, ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে অর্থ নেয়া যবে। সরকারের অনুমতি সাপেক্ষে বিদেশ থেকেও অর্থ পাওয়া যাবে। আয়ের উৎস হবে নিজস্ব প্রোপার্টি। ট্রাস্ট তার কাজ পরিচালনার জন্য অনুমতি নিয়ে ঋণও নিতে পারবে।
তহবিল দেখভালের জন্য অডিটের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে আইনে। খসড়াটি পাসের জন্য সংসদে উথ্থাপন করা হবে।

শেয়ার