হরিণাকুণ্ডে আবুল হোসেন হত্যার প্রতিবাদে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত ॥ মামলা দায়ের ॥ শহরে ১৪৪ ধারা জারি

নিজস্ব প্রতিবেদক, কালীগঞ্জ ॥ ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেন হত্যার প্রতিবাদে ১৮ দলীয় জোটের ডাকা জেলায় ৬ উপজেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতাল পালিত হয়েছে। হরতাল চলাকালে আরাপপুর, কুষ্টিয়া বাসস্ট্যান্ড ও ক্যাডেট কলেজের সামনে ৫টি ট্রাক ও দুইটি টেম্পু ভাংচুর করে হরতাল সমর্থকরা। হত্যার ঘটনায় নিহতের ছেলে সাইদুর রহমান পান্নু বাদী হয়ে হরিণাকুণ্ডু থানায় মামলা করেছেন। এদিকে, আইনশৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কায় হরিণাকুণ্ডু পৌর এলাকায় সোমবার সন্ধ্যা থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ১৪৪ বলবৎ রয়েছে।
বুধবার সকাল থেকেই জেলার ৬ উপজেলায় সড়কের উপর টায়ার জ্বালিয়ে পিকেটিং করে হরতাল সমর্থকরা। সকাল ৮টার দিকে জেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমএ মজিদের নেতৃত্বে শহরের মডার্ণমোড় থেকে হরতালের সমর্থনে একটি মিছিল বের হয়। এছাড়া কালীগঞ্জ, কোটচাঁদপুর, মহেশপুর ও শৈলকুপা শহরেও হরতালের সমর্থনে খণ্ড খণ্ড মিছিল করেছে বিএনপি। হরতালে দূরপালার সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। শহরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় র‌্যাব-পুলিশ মোতায়েন ছিল।
প্রসঙ্গত, গত সোমবার দুপুরে হরিণাকুণ্ডু উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হোসেনকে সন্ত্রাসীরা বোমা মেরে ও কুপিয়ে নৃশংসভাবে হত্যা করে। হত্যার ঘটনার নিহতের বড় ছেলে সাইদুর রহমান পান্না বাদী হয়ে ২৪ জনের নাম উল্লেখ করে হরিণাকুণ্ডু থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

শেয়ার