‘অস্বাভাবিক’ দল বিএনপিকে বোঝা কঠিন: আশরাফ

Asraf
সমাজের কথা ডেস্ক॥ সংলাপের আমন্ত্রণ গ্রহণ না করার পর নতুন করে সরকারি উদ্যোগ প্রত্যাশা নিয়ে বিএনপির অবস্থানের সমালোচনা করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।
বুধবার দলের এক সভায় বক্তব্যে তিনি বিএনপি গঠনের ইতিহাসের দিকে ইঙ্গিত করে বলেন, “বিএনপি ইজ নট এ নরমাল পলিটিক্যাল পার্টি। কমপ্লেক্স পলিটিক্যাল বিষয় নিয়ে বিএনপির সঙ্গে আলোচনা করা দুরূহ। মিলিটারি কায়দার রাজনৈতিক দলের মনোভাব বোঝা কঠিন।”
রাজনৈতিক সঙ্কটের আশঙ্কার মধ্যে দুই নেত্রীর সংলাপের প্রসঙ্গ ধরে একথা বলেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী আশরাফ। গণভবনে ওই সভায় আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা সভাপতিত্ব করেন, তবে আশরাফের বক্তব্যের সময় তিনি সভায় ছিলেন না।
বিএনপি নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবি জানিয়ে এলেও এক্ষেত্রে সংবিধান অনুসরণের পক্ষপাতি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। পাল্টাপাল্টি অবস্থানের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী সর্বদলীয় সরকারের প্রস্তাব দিলে তার পাল্টায় নির্দলীয় সরকারের রূপরেখা দেন বিরোধী নেত্রী।
এর মধ্যেই গত শুক্রবার ঢাকায় সমাবেশে সরকারকে আলোচনা করতে দুই দিন সময় বেঁধে দিয়ে তা না হলে রোববার থেকে ৬০ ঘণ্টার হরতালের ঘোষণা দেন বিএনপি চেয়ারপারসন।
এরপর শনিবার বিকালে প্রধানমন্ত্রী টেলিফোন করেন বিরোধী নেত্রীকে। শেখ হাসিনা হরতাল প্রত্যাহার করে গণভবনে যাওয়ার আমন্ত্রণ জানালে জানালে খালেদা জিয়া বলেন, হরতাল শেষ হলেই আমন্ত্রণ রক্ষা করতে পারেন তিনি।
এরপর পুনরায় সংলাপের আমন্ত্রণ নিয়ে দুই পক্ষ পরস্পরকে উদ্যোগ নিতে আহ্বান জানিয়ে আসছে।
এর মধ্যে গণভবনের ওই অনুষ্ঠানে সরকারের মুখপাত্র আশরাফ বলেন, “প্রধানমন্ত্রী নিজেই বিরোধীদলীয় নেতাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। কয়েকদিন পর এখন তারা আবার আমন্ত্রণ চাচ্ছেন।”
বিরোধীদলীয় নেতার প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “উনার সব সময় রাজকীয় ভাব। একবার দাওয়াত দিলাম। আবার দাওয়াতের জন্য বসে আছেন। আমরা একশ’ বার দাওয়াত দেব!
“প্রধানমন্ত্রীর আমন্ত্রণ স্ট্যান্ডিং। আমরা তার রিপ্লাইয়ের (জবাব) জন্য অপেক্ষা করছি,” বলেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী।

শেয়ার