যুবলীগ নেতা শিমুল হত্যাকাণ্ড মামলা দায়ের॥ আসামি দু’শতাধিক, আটক ৭

অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি॥ নওয়াপাড়া পৌর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন শিমুল হত্যাকান্ডের ঘটনায় উপজেলা বিএনপি-জামায়াতের ৭৫ জন নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে অভয়নগর থানায় মামলা হয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় নিহত শিমুলের স্ত্রী ইয়াছমিন আক্তার এ মামলা করেন। মামলায় বিএনপি-জামায়াতের দুই শতাধিক নেতাকর্মীকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে। পুলিশ সাত জনকে আটক করেছে। রোববার ১৮ দলের ডাকা হরতালের প্রথম দিনে নওয়াপাড়ায় হরতাল সমর্থকরা শিমুলকে নওয়াপাড়া হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির একটি পরিত্যাক্ত ভবনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। এ সময় তাঁর সাথে থাকা অপর চার সঙ্গীকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে। তাঁর নোয়া মাইক্রোবাসটি (ঢাকা মেট্রো চ- ১৩-২৬৯৬) পুড়িয়ে দেয় বিএনপি জামায়াতের ক্যাডাররা। রোববার বিকেলে শিমুলের নামাজে জানাজা শেষে নিজ বাড়ি ঝিকরগাছা উপজেলার দোস্তপুর গ্রামে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। ঘটনার প্রতিবাদে গতকাল বিকেলে নওয়াপাড়া বাজারের উপজেলা আওয়ামীলীগ কার্যালয়ের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। শফিয়ার রহমান সরদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মোল্যা ওলিয়ার রহমান, শ্রমিকলীগ নেতা ফারাজী নজরুল ইসলাম, পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি রফিকুল ইসলাম সরদার, সাবেক পৌর কাউন্সিলর শাহ্ ফরিদ জাহাঙ্গীর, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি আব্দুর রউফ মোল্যা প্রমূখ। পরে একটি বিক্ষোভ মিছিল নওয়াপাড়া বাজার প্রদক্ষিণ করে।

শেয়ার