চট্টগ্রামে বিএনপির সভায় বক্তব্য দেয়া নিয়ে হাতাহাতি

ctagong
সমাজের কথা ডেস্ক॥ চট্টগ্রামে হরতালের সমর্থনে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তৃতা দিতে না দেয়ায় বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতাকর্মীদের হাতাহাতি হয়েছে।
মঙ্গলবার বিকাল ৪টার দিকে নগর বিএনপির দলীয় কার্যালয় নাসিমন ভবনের সামনে দলের জ্যেষ্ঠ নেতাদের উপস্থিতিতে এ ঘটনা ঘটে।
শুরুতে স্বেচ্ছাসেবক দল সভাপতি এস কে খোদা তোতনের সঙ্গে নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাতের উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় এবং পরে দুই পক্ষের নেতাকর্মীরা হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে।
এ সময় সমাবেশস্থলে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, নগর বিএনপির সভাপতি আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন চৌধুরী ও কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম আকবর খন্দকার উপস্থিত ছিলেন।
বিএনপি নেতাকর্মীরা জানান, গত রবি ও সোমবারের হরতালে নাসিমন ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বিএনপির পাশাপাশি সহযোগী সংগঠনের নেতাদের বক্তব্য দেয়ার সুযোগ দেয়া হয়।
কিন্তু মঙ্গলবার বিকেলে সমাবেশের শুরুতেই মাইকে ঘোষণা দেয়া হয়, সহযোগী সংগঠনের কোনো নেতাকে বক্তৃতা দেয়ার সুযোগ দেয়া হবে না।
এর পরপরই সমাবেশে বক্তৃতা দেয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেন স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি তোতন। জবাবে ডা. শাহদাত বক্তব্য রাখার সুযোগ দেয়া হবে না বলে জানিয়ে দেন। এরপর দুই পক্ষে হাতাহাতি শুরু হয়।
ঘটনাস্থল থেকে আলোকচিত্রী সুমন বাবু জানান, কিছুক্ষণ দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি চলার পর জ্যেষ্ঠ নেতাদের হস্তক্ষেপে আবার পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে সমাবেশের কার্যক্রম শুরু হয়।
এ বিষয়ে এস কে খোদা তোতন বলেন, “বক্তব্য আগে দেব না পরে দেব তা নিয়ে একটু ঝামেলা হয়েছে।”
ডা. শাহদাতের সঙ্গে বাকবিতণ্ডার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, “সেরকম কিছু না। ছেলেপিলে একটু উত্তেজিত হয়েছিল। এই আর কি।”
ডা. শাহদাতের ব্যক্তিগত সহকারী মারুফুল হক বলেন, “বিভিন্ন ভাইয়ের নামে শ্লোগান দেয়ায় তিনি কয়েকজনকে বকা দিয়েছেন। বক্তব্য দেয়া নিয়ে কিছু হয়নি।”

শেয়ার