হরতালের দ্বিতীয় দিন॥ সারা দেশে সহিংসতায় নিহত ছয়

saradesh
বাংলানিউজ ॥
১৮ দলের ডাকা টানা ৬০ ঘণ্টার হরতালের দ্বিতীয় দিনেও দেশজুড়ে সহিংসতা অব্যাহত রয়েছে। রোববার মধ্যরাত থেকে সোমবার বিকেল পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন স্থানে সহিংসতায় মারা গেছেন ছয়জন। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও শতাধিক। গ্রেফতার করা হয়েছে আরও শতাধিক লোককে।
ঝিনাইদহে হত্যা করা হয়েছে উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যানকে। টাঙ্গাইলে হরতালের সমর্থনে মিছিল করার সময় নিজ দলের প্রতিপক্ষের হাতে প্রাণ হারিয়েছেন এক যুবদল নেতা। জামালপুরে নিহত হয়েছেন এক আওয়ামী লীগ কর্মী। কিশোরগঞ্জে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছেন এক যুবদল কর্মী। চাঁদপুরে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষের মাঝে পড়ে নিহত হয়েছে এক পথচারী কিশোর। সাতকানিয়ায় পিকেটারদের হামলায় মারা গেছেন এক ট্রাক চালক।
ঝিনাইদহ: সোমবার হরতাল চলাকালীন সময়ে দুর্বৃত্তরা গুলি করে ও বোমা মেরে হত্যা করে ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলা বিএনপির সভাপতি ও দৌলতপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবুল হোসেনকে (৫৬)।
টাঙ্গাইল: টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বিএনপির দুই গ্র’পের সংঘর্ষে উপজেলা যুবদলের যুগ্ম সম্পাদক আব্দুল আলীম (৪০) নিহত হয়েছেন।
সোমবার দুপুর দুইটায় উপজেলার সোহাগপাড়া বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহত আব্দুল আলীম গোড়াই ইউনিয়নের লালবাড়ী গ্রামের আব্দুর রহমানের পুত্র।
হরতালের দ্বিতীয় দিন দুপুরে পিকেটিংয়ের সময় উপজেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি আবুল কালাম আজাদ সিদ্দিকী ও জিয়া শিশু কিশোর সংগঠনের সহ সভাপতি জেলা বিএনপির সদস্য ফিরোজ হায়দার খানের সমর্থকদের মধ্যে সোহাগপাড়া বাজারে সংঘর্ষ বাঁধে। এ সময় কালামের লোকজন আব্দুল আলীমকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে মির্জাপুর কুমুদিনি হাসপাতালে নেওয়া হলে দায়িত্বরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
জামালপুর: জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলায় শাহজাদা (২৮) নামের এক আওয়ামী লীগ কর্মীকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।
সোমবার হরতাল চলাকালে সকাল ৯টার দিকে উপজেলার আমভদ্রা বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত শাহাজাদা ইসলামপুরের চরভদ্রা গ্রামের জবান আলীর পুত্র।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, সকালে আমভদ্রা বাজারের কাছে হরতাল সমর্থনে মিছিল বের করে ১৮ দলের নেতারা। এ সময় স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা মিছিলে বাধা দিলে উভয়পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এক পর্যায়ে দা দিয়ে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে শাহাজাদাকে হত্যা করে পিকেটাররা।
তবে এটি রাজনৈতিক হত্যাকাণ্ড নয় বলে দাবি করেছেন ইসলামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী সাইদুর রহমান।
তিনি বলেন, সকালে বাড়ি থেকে আমভদ্রা বাজারে আসছিলেন শাহাজাদা। এ সময় দুর্বৃত্তরা একা পেয়ে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে। জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে পরিকল্পিতভাবে শাহাজাদাকে হত্যা করা হয়েছে বলে জানান ওসি।
কিশোরগঞ্জ: কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচরে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে নিহত হয়েছেন যুবদল কর্মী মোহাম্মদ হাসেন আলী(৩২)। বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে এ ঘটনা ঘটে। বিএনপি’র দাবি পুলিশের টিয়ার শেলের আঘাতে গুরুতর আহত হন হাসেন। পরে জহুরুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান তিনি।
চাঁদপুর: এদিকে চাঁদপুরে হরতাল চলাকালীন সময়ে বিএনপি-আওয়ামী লীগ সংঘর্ষে নিহত হয়েছে এক কিশোর। সোমবার বেলা দশটার দিকে চাঁদপুর শহরের পুরান বাজারে এ ঘটনা ঘটে। নিহত পল্টু পুরান বাজারের মোম ফ্যাক্টরি এলাকার মকবুল হোসেনের পুত্র।
পুলিশ জানায়, লোহারপুল এলাকায় বিএনপি ও আওয়ামী লীগ নেতকর্মীদের মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ চলাকালীন সময়ে পল্টু ছুরিকাহত হয়। তাকে উদ্ধার করে চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।
তবে পল্টুর গায়ে দু’টি গুলির চিহ্ন ছিলো বলে জানান চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক সিরাজুল ইসলাম।
নিহতের মা ফরিদা বেগম দাবি করেন, পল্টু কোনো রাজনৈতিক দলের সঙ্গে জড়িত ছিলো না। সকালে নদীর পাড়ে যাওয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয় সে।
চাঁদপুরের পুলিশ সুপার আমির জাফর জানান, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ও সংঘর্ষ এড়াতে চাঁদপুর শহরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে।
চট্টগ্রাম: পিকেটারদের হামলায় রোববার গভীর রাতে সাতকানিয়ার চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে নিহত হয়েছেন ওয়াসিম(৩০) নামের এক ট্রাক চালক।
সাতকানিয়ার হাসমতের দোকান নামের একটি স্থানে রাত দুইটার সময় পিকেটারদের ছোড়া ইটের আঘাতে ট্রাকটির সামনের গ্লাস ভেঙ্গে যায়, এ সময় ট্রাকটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে খাদে পড়ে গেলে ট্রাকের নিচে চাপা পড়ে নিহত হন ওয়াসিম। ওয়াসিমের বাড়ি কক্সবাজার জেলায়। তার লাশ চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রাখা আছে।

শেয়ার