যে কোনো বিষয়ে আলোচনা হতে পারে: আশরাফ

ashraf
সমাজের কথা ডেস্ক॥ বিএনপির সঙ্গে যে কোনো বিষয়ে আলোচনা করতে আওয়ামী লীগ রাজি বলে জানিয়েছেন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।
শনিবার সন্ধ্যায় দুই নেত্রীর টেলিফোন আলোচনার পর তিনি গণভবনে সাংবাদিকদের বলেন,“যে কোনো বিষয়ে আলোচনার দুয়ার খোলা আছে। জাতি আশা করেছিল, দুই নেত্রী কথা বলবেন এবং সঙ্কটের নিরসন হবে।”
আলোচনার বিষয়বস্তু কী হবে- জানতে চাইলে আশরাফ বলেন, “আলোচনা শুরু হবে। দুই নেত্রী আলোচনা শুরু করবেন।
“আমরা থাকতেও (আলোচনায়)পারি, নাও পারি। তারা ঠিক করবেন, তাদের সূচনা আলোচনা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।”
আগামী নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক সঙ্কটের আশঙ্কায় দেশের মানুষের উদ্বেগের মধ্যে সন্ধ্যায় ৩৭ মিনিট ধরে কথা বলেন দুই প্রধান নেত্রী শেখ হাসিনা ও খালেদা জিয়া।
আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আশরাফ বলেন, “আজকের দিনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আজ বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে যুগান্তকারী ঘটনা ঘটেছে।”
বিরোধীদলীয় নেতাকে টেলিফোন করে আলোচনার জন্য তাকে ২৮ অক্টোবর গণভবনে আমন্ত্রণ জানান। সেই সঙ্গে আগামী তিনদিনের হরতাল প্রত্যাহারের অনুরোধও করেন তিনি।
আশরাফ বলেন,“আশা করি, এখন আর হরতালের প্রয়োজন নেই। যেখানে আলোচনা আছে, সেখানে হরতালের প্রয়োজন নেই।”
সংলাপের উদ্যোগ নিতে শনিবার পর্যন্ত সরকারকে সময় বেঁধে দিয়ে তা না হলে রোববার থেকে তিন দিনের হরতাল ডেকেছেন খালেদা জিয়া।
সংলাপের আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর টেলিফোনের পর বিএনপির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, হরতাল শেষ করেই তারা প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সংলাপে বসতে চান।
তবে টেলিফোনে আলোচনায় বিরোধীদলীয় নেতা সংলাপের আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করেননি বলে জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।
“উনি আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান করেননি। আমাদের বিশ্বাস, উনি আমন্ত্রণ গ্রহণ করবেন। আমাদের জানা মতে, উনাদের মধ্যে নেতিবাচক কথা হয়নি। আমার বিশ্বাস, উনারা আমন্ত্রণ গ্রহণ করবেন, ২৮ তারিখ গণভবনে আসবেন।”

শেয়ার