আইনমন্ত্রী, সিইসির বাসা ও একাত্তর টেলিভিশনে বোমা হামলা

Ekattor
সমাজের কথা ডেস্ক॥ আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমদের বাসায় তার কক্ষ বরাবর হাতবোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে, ওই সময় মন্ত্রী তার কক্ষেই ছিলেন। প্রায় একই সময় প্রধান নির্বাচন কমিশনারের বাসায়ও বোমা হামলা হয়েছে। এছাড়া বেসরকারি টেলিভিশন স্টেশন একাত্তরের বারিধারা কার্যালয়ে বোমা হামলা হয়েছে।
আইনমন্ত্রীর ছেলে ব্যারিস্টার মাহবুব শফিক বলেন, “সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিটের দিকে আমরা পরপর দুটি বোমা বিস্ফোরণের শব্দ পেয়ে বের হয়ে দেখি ধোঁয়া উড়ছে। তবে কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। “বাসার পেছনের দিকে থাকা একটি গাছের নিচে ওই বোমা দুটির বিস্ফোরণ ঘটে। বোমাটি যেখানে বিস্ফোরিত হয়েছে তার বরাবর উপরে বাবার রুম। তিনি হামলার সময় সেখানেই ছিলেন।”
তেজগাঁও বিভাগ পুলিশের উপ-কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বলেন, আইনমন্ত্রীর ইন্ধিরা রোডের বাসার পেছনে হাতবোমা নিক্ষেপের খবর পেয়ে তারা সেখানে গিয়েছিলেন। তবে সন্দেহভাজন কাউকে পাওয়া যায়নি।
এর আগে সন্ধ্যা ৭টার দিকে সিইসি কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের বারিধারার বাসার প্রাচীরে হাতবোমা নিক্ষেপ করা হয়েছে বলে জানান সহকারী কমিশনার (গুলশান জোন) আব্দুল মতিন।
“এ সময় সিইসি বাসায় ছিলেন। কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা নিশ্চিত করা যায়নি।”
এদিকে, বেসরকারি টেলিভিশন স্টেশন একাত্তরের বারিধারা কার্যালয়ে বোমা হামলা হয়েছে। বোমার আঘাতে সংবাদ মাধ্যমটির জ্যেষ্ঠ বার্তাকক্ষ সম্পাদক জাকারিয়া আকন্দ বিপ্লব ও ক্যামেরা পারসন আলমগীর হোসেন আহত হয়েছেন। বিপ্লবের অবস্থা গুরুতর।
একাত্তর টিভির জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক মিল্টন আনোয়ার বলেন, সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে মূল রাস্তা থেকে প্রাচীরের উপর দিয়ে একটি বোমা নিক্ষেপ করা হয়। বোমায় কার্যালয়ের নিচে দাঁড়ানো বিপ্লব ও আলমগীর গুরুতর জখম হয়েছেন।
“বোমার আঘাতে বিপ্লবের পায়ের অনেকখানি মাংস উড়ে গেছে। তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।”
উন্নত চিকিৎসার জন্য সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন একাত্তর টিভির অনুষ্ঠান প্রধান আহমেদ রেজাউর রহমান।
ঢাকা মহানগর পুলিশের গুলশান জোনের উপ-কমিশনার লুৎফুল কবির সাংবাদিকদের বলেন, এই হামলা বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা নয়। আজ দেশের বিভিন্ন যে হামলা হয়েছে এটা তারই অংশ।
জাকারিয়া অনলাইন সংবাদপত্র বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সাবেক সহ-সম্পাদক।
বোমা হামলার জন্য হরতালের সমর্থকদের দায়ী করেছেন একাত্তর টিভি কর্তৃপক্ষ।
এদিকে প্রায় একই সময় মিরপুরের পল্লবীতে বেসরকারি টেলিভিশন মোহনা কার্যালয়ের সামনে একটি হাতবোমা বিস্ফোরণ হয়।
মোহনার চেয়ারম্যান সাংসদ কামাল মজুমদারের ব্যক্তিগত সহকারী মোজাম্মেল মজুমদার জানিয়েছেন, তাদের কার্যালয়কে লক্ষ্য করে বোমাটি নিক্ষেপ করা হয়েছিল। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি।

শেয়ার