হরতাল নয়, নির্বাচনের প্রস্তুতি নিন: নাসিম

Nasim
সমাজের কথা ডে স্ক ॥ হরতালের কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আওয়ামী লীগ।
বিরোধী দলীয় নেতা সোহরাওয়ার্দি উদ্যানের সমাবেশে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা যুক্তিহীন, অসাড় ও আক্রমণাত্মক বলেও মনে করে দলটি।
শুক্রবার বিকালে খালেদা জিয়ার বক্তব্যের পরপরই ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার‌্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য মোহাম্মদ নাসিম বলেন, “আমরা আশা করেছিলাম বিরোধী দলীয় নেতা দায়িত্বশীল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন। কিন্তু তার বক্তব্য শুনে জাতি আশাহত ও উৎকণ্ঠিত হয়েছে।”
নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের দাবি তুলে ধরে এ বিষয়ে দুই দিনের মধ্যে সংলাপের উদ্যোগ না নিলে রোববার থেকে সারা দেশে তিন দিনের টানা হরতালের কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন খালেদা জিয়া।
খালেদা জিয়াকে জনগণের জানমালের ক্ষতি না করার অনুরোধ জানিয়ে নাসিম বলেন, “আপনি পল্টন থেকে সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে এসেছেন। তেমনি আপনি নির্বাচনে আসবেন, দেশে সর্বদলীয় নির্বাচন হবে।”
“এই ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দি উদ্যানে খালেদা জিয়া নরঘাতক স্বাধীনতাবিরোধীদের নিয়ে বক্তব্য দিয়েছেন। তিনি অত্যন্ত যুক্তিহীন, অসাড় ও আক্রমণাত্মক বক্তব্য দিয়েছেন,” বলেন নাসিম।
সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নাসিম বলেন, “খালেদা জিয়া ২৫ অক্টোবরের পর থেকে মহাজোট সরকারকে অবৈধ বলে ঘোষণা করলেও শুক্রবার তিনিই এই সরকারের মেয়াদ দুই দিন বাড়িয়ে দিয়েছেন।”
“তিনি দুই দিন সময় বাড়িয়েছেন। আমি অত্যন্ত বিনয়ের সঙ্গে তাকে জিজ্ঞাসা করতে চাই, আপনি কি সংবিধান পড়েছেন? আমাদের এই সরকার ও সংসদ ২০১৪ সালের ২৪ জানুয়ারি পর‌্যন্ত থাকবে, যদি না প্রধানমন্ত্রী কোনো সিদ্ধান্ত নেন।”
খালেদা জিয়া আলোচনার পথে না এসে সংঘাতের পথ বেছে নিয়েছেন মন্তব্য করে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, “আমরা আশা করেছিলাম বিরোধী দল আলোচনার পখ বেছে নেবে। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, কথা বলবেন। আমাদের সাধারণ সম্পাদক ফোনে কথাও বলেছেন। কিন্তু তারপরেও তিনি সংলাপ নয়, সংঘাতের পথ বেছে নিয়েছেন।”
“আমরা সর্বদলীয় নির্বাচন করতে চাই। এক দলীয় নির্বাচন তিনিই (খালেদা জিয়া) করেছিলেন।”
সংবিধানের পথে এসে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিতে বিরোধী দলের প্রতি আহ্বান জানান ক্ষমতাসীন দলের এই নেতা।
খালেদা জিয়াকে গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “আপনি সরকারি কর্মকর্তাদের হুমকি দিয়েছেন। কিন্তু তারা সরকারের কাজ করবে। আপনি গণতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন, সক্রিয় রাজনীতি করুন।”
সভামঞ্চে খালেদা জিয়ার পাশে উপস্থিত নেতাদের নিয়ে প্রশ্ন তুলে নাসিম বলেন, “আপনার মঞ্চে কারা ছিল? একাত্তরের ঘাতকরা ছিল। আপনি একাত্তরের ঘাতকদের মুক্তি চেয়েছেন।”
সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবীর নানক, দীপু মনি, সাংগঠনিক সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিম, খালেদ মাহমুদ চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
এদিকে শনিবার বেলা ১২টায় ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে মহাজোটের শরিক দলগুলোর কেন্দ্রীয় নেতাদের বৈঠক আহ্বান করা হয়েছে।
সভায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে উপস্থিত থাকার জন্য ১৪ দলের সমন্বয়ক ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলির সদস্য সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী অনুরোধ জানিয়েছেন।

শেয়ার