বাগেরহাটে ভাংচুর, লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের ঘটনায় জেলা বিএনপির সভাপতি, সম্পাদকসহ ৪০০ জনের নামে মামলা

বাগেরহাট প্রতিনিধি॥ বাগেরহাটের ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় পৃথক দুটি মামলা হয়েছে। মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতি এমএ সালাম ও সাধারণ সম্পাদক আলী রেজা বাবুসহ প্রায় ৪০০ বিএনপি-জামায়াত নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। সোমবার রাতে বিষ্ণুপুর ইউনিয়ন যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক মুকুল সরদার ও ছাত্রলীগের সভাপতি মিজানুর রহমান বাদী হয়ে এই মামলা দুটি দায়ের করে। ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনায় যুবলীগ নেতা মুকুল সরদার বাদী হয়ে দায়েরকৃত মামলা ৫৪ বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীর নাম উল্লেখসহ আরও ২০/৩০ জনকে অজ্ঞাত আসামি এবং ছাত্রলীগ সভাপতি মিজানুর রহমান বাদী হয়ে দ্রুত বিচার আইনে দায়েরকৃত মামলায় জেলা বিএনপির সভাপতি এমএ সালাম, সাধারণ সম্পাদক আলী রেজা বাবুসহ বিএনপি-জামায়াতের ১০৯ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখসহ ১৫০/ ২০০ জনকে অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।
সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এরশাদুল কবির জানান, মুকুল সরদার ও মিজানুর রহমান বাদী হয়ে সোমবার রাতে ভাংচুর ও দ্রুত বিচার আইনে পৃথক দুটি মামলা দায়ের করেছে। এই মামলায় বিএনপি ও জামায়াতের প্রায় ৪০০ নেতাকর্মীকে অভিযুক্ত করা হয়। পুলিশ ইতিমধ্যে ৪ জনকে আটক করেছে। আটককৃতরা হলো আলম খান, শেখ নুরুল, আমিরুজ্জামান টুকু ও লিপু।
রবিবার রাতে বাগেরহাট সদর উপজেলার কু-কোড়ামারা এলাকায় আওয়ামীলীগ ও বিএনপি-জামায়াত নেতা-কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে ১৫ জন আহত হয়। এ সময়ে আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীরা বিএনপি-জামায়াতের নেতাকর্মীর বাড়ি, দোকান-পাট ভাংচুর, মোটরসাইকেলে অগ্নিসংযোগ করে।

শেয়ার