জিল্লুর রহমান মিন্টু হত্যা মামলায় আরো এক আসামি আটক ॥ ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক॥ চৌগাছার ইউপি চেয়ারম্যান জিল্লুর রহমান মিন্টু হত্যাকাণ্ডে জড়িত মনিরুল ইসলাম ওরফে মনু হোসেন নামে আরো এক আসামিকে আটক করেছে পুলিশ। চেয়ারম্যান মিন্টুকে হত্যার প্রধান কিলার শামীমের সাথে মোবাইলের মাধ্যমে মনুর বিরুদ্ধে তথ্য আদান প্রদানের প্রমান পাওয়ায় পুলিশ তাকে আটক করে। মঙ্গলবার ৭দিনের রিমান্ড চেয়ে তাকে যশোর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। আজ তার রিমাণ্ড শুনানীর দিন ধার্য্য রয়েছে। সোমবার বিকেলে চৌগাছা উপজেলার মশিউর নগর গ্রাম থেকে ডিবি পুলিশের এসআই আবুল খায়ের তাকে আটক করেন।
জানাগেছে, চৌগাছা এলাকার শীর্ষ সন্ত্রাসী শামিম জবর দখল ও খুন খারাবিসহ বিভিন্ন ধরনের অপকর্ম করে বেড়ায়। আর তার ওই সকল অপকর্মের বিরোধীতা করায় শামিম একই এলাকার সিংহঝুলি ইউপি চেয়ারম্যান ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি জিল্লুর রহমান মিন্টুকে খুনের ষড়যন্ত্র করতে থাকে। গত ২৬ সেপ্টেম্বর দুপুরে মশিউর রহমান মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এক অনুষ্ঠানে অংশ গ্রহন করেন চেয়ারম্যান মিন্টু। আর ওই সন্ত্রাসীরা তাদের ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে ওই অনুষ্ঠানে তাকে হত্যার জন্য সেখানে যায়। কিন্তু চেয়ারম্যান মিন্টু খাওয়া দাওয়া শেষে স্কুলের বারান্দার সামনে দাড়িয়ে অপর একজনের সঙ্গে কথা বলছিলেন। এ সময় সন্ত্রাসীরা তাকে অস্ত্র দিয়ে ২/৩ রাউন্ড এলোপাতাড়ি গুলি বর্ষণ করে। ফলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী জাকিয়া সুলতানার দায়ের করা মামলায় পুলিশ ইতিপূর্বে জাহাঙ্গীর, বিদ্যুৎ ও আমিরুল নামে তিনজনকে আটক করে। সম্প্রতি শামিমের মোবাইলের কললিস্ট তুলে পুলিশ মনু হোসেনের মোবাইলে একাধিকবার কথা বলা বা তথ্য আদান প্রদানের প্রমান পায়। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে মশিউর নগর গ্রাম থেকে তাকে আটক করা হয়। ৭ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করা হলে আজ তার রিমাণ্ড শুনানী হবে বলে জানাগেছে।

শেয়ার