মসজিদে ছবি তোলায় সমালোচিত রিহান্না!

সমাজের কথা ডেস্ক॥Rihanna
যেখানে রিহান্না সেখানেই বিতর্ক। ব্যতিক্রম হয়নি সংযুক্ত আরব আমিরাতেও। অনুমতি ছাড়া মসজিদে ফটোশুট করার দায়ে তাকে মসজিদ ছাড়ার নির্দেশ দেয় কর্তৃপক্ষ। খবর গালফ নিউজ।

বিশ্বব্যপি ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড ট্যুরে বেরিয়েছেন ক্যারিবিয়ান দ্বীপ বার্বাডোজের পপ গায়িকা রিহান্না। সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবীতে শনিবার রাতে এক অনুষ্ঠানে পারফর্ম করেন তিনি। তারপর শেখ জায়েদ গ্র্যান্ড মসজিদে ভ্রমণ করতে গিয়ে অননুমোদিতভাবে ফ্যাশন ভঙ্গিমায় ফটোশুট করেন তিনি।

সেখানে তোলা কিছু ফটো ছবি-ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইনস্টগ্রাম-এ পোষ্ট করেন রিহান্না। ছবিগুলোতে দেখা যায়, মাথায় স্কার্ফ বাঁধা, গলায় স্বর্ণের হার এবং হাতের কবজি এবং পায়ের গোড়ালি ঢাকা কালো জাম্পস্যুট পরা রিহান্নাকে।

দুই জন ফটোগ্রাফার দিয়ে মসজিদের ভেতর এবং বাইরে বিভিন্ন ফ্যাশন ভঙ্গিতে ফটোশ্যুট করেন রিহান্না। পোশাক শ্লীল হলেও মসজিদের মত জায়গায় গিয়ে এভাবে ফটোশ্যুট করা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে অনেকে সমালোচনা করেন রিহান্নার। এর প্রেক্ষিতে রিহান্নার নাম প্রকাশ না করে শেখ জায়েদ গ্র্যান্ড মসজিদ সেন্টার আরবীতে এক বিবৃতি দেয়। তাতে বলা হয়, একজন বিখ্যাত শিল্পী এসেছিলেন এবং তিনি একবার কোড অব কন্ডাক্ট ভঙ্গ করেন। ফলে তাকে মসজিদ থেকে চলে যেতে বলা হয়। এই মসজিদ আরব আমিরাতের সংস্কৃতি, ধর্ম ও জ্ঞানের কেন্দ্র। এটা সব ধরনের মতবাদে বিশ্বাসী পর্যটকদের জন্য সবসময় উন্মুক্ত।

কিন্তু ভ্রমণকারীদের ছবি তোলার অনুমতি দেয়া হয় এ অর্থে যে তা যেন যথার্থভাবে তোলা হয়। ধর্মীয় পরিবেশ এবং স্থান যেন অসম্মানিত না হয়। কিন্তু ওই গায়িকা মসজিদে ভ্রমণের আগে মসজিদ কর্তৃপক্ষের সাথে আগাম কোন আলোচনা করেননি ফটোশ্যুট নিয়ে। সঠিকভাবে মসজিদ ঘুরে দেখতে পর্যটক প্রবেশ পথে ঢুকতে বলা হলেও তিনি তা করেননি। বাইরে থেকে ক্যামেরায় এমন শট নিয়েছেন, যেটি মসজিদ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক অনুমোদনীয় নয়। ফলে তাদেরকে স্থানটি ত্যাগ করতে বলা হয়।

প্রসঙ্গত, শেখ জায়েদ গ্র্যান্ড মসজিদ আরব আমিরাতের সবচেয়ে বড় মসজিদ। অমুসলিমদের জন্য মসজিদটিতে ভ্রমণ উন্মুক্ত।

শেয়ার