খালেদা ‘পেছনে’ টানছেন: আশরাফ

Ashraf
সমাজের কথা ডেস্ক॥ খালেদা জিয়ার প্রস্তাবকে ‘পশ্চাৎ-মুখী’ অভিহিত করে অসাংবিধানিক কোনো প্রস্তাব মেনে না নেয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম।
বিরোধীদলীয় নেতার সংবাদ সম্মেলনের পর সরকারের মুখপাত্র আশরাফ তাৎক্ষণিকভাবে এই প্রতিক্রিয়া জানান বলে প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী (মিডিয়া) মাহবুবুল হক শাকিল জানিয়েছেন।
আগামী নির্বাচন নিয়ে রাজনৈতিক বিরোধের মধ্যে প্রধানমন্ত্রীর সর্বদলীয় সরকারের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের একটি প্রস্তাব সোমবার সংবাদ সম্মেলনে তুলে ধরেন বিএনপি চেয়ারপারসন।
তিনি বিলুপ্ত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মতো ১১ সদস্যের একটি নির্বাচনকালীন সরকার প্রস্তাব করেছেন। এর প্রধান উপদেষ্টা হবেন দুই দলের মতৈক্যের ভিত্তিতে এবং ১৯৯৬ এবং ২০০১ সালের উপদেষ্টাদের মধ্য থেকে ১০ জন উপদেষ্টা মনোনীত হবেন।
প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের তিন দিনের মাথায় পাল্টা প্রস্তাব নিয়ে তা নিয়ে আলোচনার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বিরোধীদলীয় নেতা।
আশরাফ বলেছেন, “প্রধানমন্ত্রী তার বক্তৃতায় যখন গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে সবাইকে নিয়ে এক সাথে পথ চলার আহ্বান জানিয়েছেন। তখন বিরোধীদলীয় নেতার আজকের বক্তৃতায় তার ব্যক্তিগত বিদ্বেষের প্রতিফলন ঘটেছে।”
শাকিল বলেন, “স্থানীয় সরকারমন্ত্রী বলেছেন, ‘তার এই বক্তব্য পশ্চাৎ-মুখী। সামনে এগিয়ে যাওয়ার কোনো ঈঙ্গিত নেই’।”
“জিয়াউর রহমান অসাংবিধানিকভাবে ক্ষমতা দখল করেছিলেন। তাই বিএনপি নেত্রীর অসাংবিধানিক সরকারপ্রীতি নতুন কিছু নয়,” বলেছেন আশরাফ।
প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী জানান, খালেদা জিয়ার প্রস্তাবের বিষয়ে আশরাফুল ইসলাম দলের পক্ষ থেকে মঙ্গলবার বা বুধবার আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া দেবেন।
খালেদা জিয়ার সংবাদ সম্মেলনের পর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফও বলেছিলেন, তার প্রস্তাব পর্যালোচনা করে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানানো হবে।
তিনি বলেন, “বিরোধীদলীয় নেতার বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া তো আমি দিতে পারি না।”
পরে অবশ্য হানিফ কারওয়ান বাজারে তার ব্যবসায়িক কার্যালয়ে টেলিভিশন সাংবাদিকদের প্রতিক্রিয়া জানিয়ে বলেন, বিরোধীদলীয় নেতার প্রস্তাব গ্রহণযোগ্য নয়।

শেয়ার