জ্বালাও পোড়াও করে নতুন প্রজন্মকে ক্ষতগ্রিস্ত করবনে না

Nurul islamসমাজের কথা ডেস্ক॥ জ্বালাও পোড়াও এবং আন্দোলনের নামে দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করে পরীক্ষায় বাধা সৃষ্টির মাধ্যমে নতুন প্রজন্মকে ক্ষতিগ্রস্ত না করার আহ্বান জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নূরুল ইসলাম নাহিদ।
রোববার সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলেনায়তনে ইউনিটির সদস্য সন্তানদের এসএসসি ও এইচএসসি শিক্ষার্থী ও লেখক সদস্য সম্মাননা এবং বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘ছাত্র-ছাত্রীরাই হলো আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। তাদের পড়াশুনা ও পরীক্ষায় বাধা সৃষ্টি করা কোনো রাজনৈতিক আদর্শ নয়। রাজনৈতিক নেতাদের জ্বালাও পোড়াও কর্মসূচি বন্ধ করতে হবে। ছাত্র-ছাত্রীদের বিবেকবান রাজনীতিবিদ হতে সহায়তা করতে হবে।’
বর্তমান শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা ও ভবিষ্যতে ভালো শিক্ষার পরিবেশ তৈরি করার জন্য প্রত্যেক রাজনৈতিক ব্যক্তিদের বিবেকবান ও সচেতন হওয়া প্রয়োজন বলেও জানান তিনি।
তিনি বলেন, ‘এ প্রজন্ম হলো ভবিষ্যতের গৌরব। তাদের সহযোগিতা করার জন্য রাজনৈতিক নেতাদের বেশি করে পড়াশুনা করা উচিৎ। দেশের রাজনৈতিক ও সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য পড়াশুনার বিকল্প নেই।’
শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতি অনেকাংশ হ্রাস পেয়েছে উল্লেখ করে নাহিদ বলেন, ‘গত সরকারের সময় শিক্ষা ক্ষেত্রে দুর্নীতি ছিল ৪৯ ভাগ। অমরা এ দুর্নীতি কমিয়ে ১২ ভাগে এনেছি। এটি একটি গৌরবের ব্যাপার। তবে আমরা চাই শিক্ষা ক্ষেত্রে কোনো দুর্নীতি থাকবে না। এ জন্য সবার সহযোগিতা প্রয়োজন।’
তিনি বলেন, ‘সব ধরনের পরীক্ষা নির্ধারিত সময় মত হচ্ছে এবং তার ফলাফলও আমরা নির্ধারিত সময় দিচ্ছি।’ ভবিষ্যতে কোনো ধরনের সেশন জট থাকবে না বলেও তিনি জানান।
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি সাহেদ চৌধুরির সভাপতিত্বে এতে আরও বক্তব্য দেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, রাষ্ট্রপতির প্রেস সচিব এহসানুল করিম হেলাল, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস খান প্রমুখ।

শেয়ার