শৈলকুপায় কিনিকে ভুল অপারেশনে প্রসূতির মৃত্যু

শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধি॥ ভুল অপারেশনে ঝিনাইদহের শৈলকুপায় কিনিকে এক প্রসূতির মৃত্যুর অভিযোগ পাওয়া গেছে। বৃহস্পতিবার রাতে কবিরপুরে আয়েশা কিনিকে সিজার অপারেশনের পর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে তহুরা খাতুন নামের ওই প্রসূতি। প্রসূতি মায়ের মৃত্যু হলেও বেঁচে আছে সদ্যপ্রসূত ওই শিশু সন্তানটি। নিহত তহুরা (৩২) শৈলকুপা বারইপাড়া গ্রামের আবু সইদ বিশ্বাসের স্ত্রী।
নিহতের শ্বশুর বারইপাড়া গ্রামের আমজাদ বিশ্বাস জানান, তার পুত্রবধূ তহুরার প্রসব বেদনা উঠলে তাকে কবিরপুরে আয়েশা কিনিকে ভর্তি করা হয়। রাত সাড়ে ৮ টার দিকে তাকে সিজার অপারেশনের জন্য ওটিতে নেয়া হয়। সিজার অপারেশন করেন পাশ্ববর্তী কুষ্টিয়া জেলার খোকসা উপজেরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তার রাকিবুদ্দিন রকি। সিজার অপারেশনে একটি ছেলে সন্তান জন্ম দেয় তহুরা। এর কিছুণ পর সে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। তিনি আরো বলেন, কিনিকে এনেসথেশিয়া ডাক্তার ছিল না। প্রশিতি নার্স ও বিশেষজ্ঞ ডাক্তার বাদেই সিজার করার ফলে তার মৃত্যু ঘটেছে। অভিযুক্ত ডাক্তার রাকিবুদ্দিন রকিকে কিনিকে পাওয়া যায়নি। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি বন্ধ ছিল।
আয়েশা প্রাইভেট হাসপাতালের মালিক সাইদুল ইসলাম জানান, রোগীর প্রেসার পর্যাপ্ত না থাকায় সে মারা গেছে।
ঘটনার পর স্থানীয়রা জানান, ঝিনাইদহ সিভিল সার্জন অফিসের কতিপয় দুর্নীতিবাজ কর্মকর্তাদের ম্যানেজ করে আয়েশা প্রাইভেট হাসপাতাল ও কিনিকে রোগী চিকিৎসার নামে রমরমা ব্যবসা চলছে। এখানে ভুল চিকিৎসায় প্রায়শ রোগী মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। কিনিকটিতে পরিবেশ অধিদপ্তরের কোন ছাড়পত্র নাই, এসি ক নাই, পর্যাপ্ত অক্সিজেন সিলিন্ডার নাই, নিয়োগ প্রাপ্ত বিশেষজ্ঞ ডাক্তার ও প্রশিতি নার্স নাই। তার পরও চলে এ কিনিকটি।

শেয়ার