কলারোয়ায় নদীর পাড়ে সাড়ে ৩’শ পরিবার পানি বন্দি॥ আত্মীয় বাড়ি নিয়ে লাশ দাফন

কলারোয়া (সাতীরা) প্রতিনিধি॥ ভরাট হয়ে যাওয়া কপোতা ও বেত্রবতীর দু’কুল উপচে নদী তীরবতী প্রায় সাড়ে তিনশত পরিবার পানি বন্দি হয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। জানা গেছে, আশ্বিন মাসের শেষার্ধে অকাল এবং অতি বর্ষণে কলারোয়ার মাঠঘাট, নালা, ডোবা, খাল, বিল পানিতে টাইটুম্বর হয়ে যায়। তারপরে পানি ভরাট হয়ে যাওয়া কপোতা ও বেত্রাবতী নদীর দু’কুল উপচে পড়ে পার্শ্ববর্তী মাঠঘাট ও জনপদে প্রবেশ করেছে। ফলে কপোতা তীরবর্তী দেয়াড়া মাঠপাড়া, দেয়াড়া সানাপাড়া ও কাশিয়াডাঙ্গায় প্রায় হাজার বিঘা জমির ধান ডুবে গেছে। এসব এলাকার প্রায় ৩’শ পরিবার পানি বন্দী হয়ে পড়েছে। সরকার এবং এনজিও’র সহায়তায় ভীত উচু করায় বসত বাড়িগুলো অত থাকলেও সমস্ত ঘর বাড়ি এবং পার্শ্ববতী তে খামার ডুবে চারিদিকে পানিতে থৈ থৈ করছে। অনেক বাড়ির আঙ্গিনাও পানিতে তলিয়ে গেছে। পানি পেরিয়ে হাটবাজারে যেতে হচ্ছে। এছাড়া বেত্রাবতী নদীর পানি উপচে তীরবর্তী কলারোয়া পৌর এলাকার মুরারিকাটি গ্রামের প্রায় ৫০ পরিবার বন্দি হয়ে পড়েছে। বাড়ি ঘরের চারিদিকে পানি থাকায় মানুষের দূর্ভোগের অন্ত নেই। শুধু ঘরের ভীতগুলো বাদে চারিদিকে পানিতে ডুবে থাকায় গত ১৫অক্টোবর লিভার ক্যান্সারে মারা যাওয়া দেয়াড়া মাঠপাড়ার শামছুর রহমান (৪৫) কে তার জামাতার বাড়ি নিয়ে কবরস্থ করা হয়েছে।

শেয়ার